নারীর প্রেমে একাধিক দোকানও কিনেছেন সম্রাট!

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   ১১:২৪, অক্টোবর ২১, ২০১৯

বহুল আলোচিত-সমালোচিত যুবলীগের বহিষ্কৃত নেতা ও ‘ক্যাসিনো জুয়ার সম্রাট’ ইসমাইল হোসেন চৌধুরী (সম্রাট) সিঙ্গাপুরে ক্যাসিনো খেলতে লাগেজভর্তি ডলার নিয়ে যেতেন বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে সম্রাট আরও জানান, তিনি জুয়া খেলতে যেতেন সিঙ্গাপুরের মেরিনা বে ক্যাসিনোতে। সঙ্গে নিতেন লাগেজভর্তি ডলার।

ভিআইপি লাউঞ্জ দিয়ে বিমানে উঠতেন সম্রাট। তার লাগেজ চেক করা দূরের কথা কখনোই তাকে দেহতল্লাশির মুখোমুখিও হতে হয়নি। ক্যাসিনোতে তিনি দু’হাতে ডলার উড়াতেন। কখনো হারতেন, আবার কখনো জেততেন।

এদিকে র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে সম্রাট এও জানিয়েছেন, এই জুয়ার বোর্ডে একদিনে তিনি ৪৫ কোটি টাকাও হারেন।

জিজ্ঞাসাবাদে সম্রাট নিজের জুয়ার নেশা থেকে শুরু করে ঢাকার ক্যাসিনো সাম্রাজ্যের আদ্যোপান্ত সবিস্তারে খুলে বলছেন সম্রাট।

তার গডফাদার কে, কীভাবে তিনি ক্যাসিনো জগতে এলেন এবং জুয়ার টাকা কার কার পকেটে গেছে সবার নামই তিনি খুলে বলছেন। জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া নামগুলোর তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। যাচাই-বাছাই শেষে নামের তালিকা পাঠানো হচ্ছে সরকারের উচ্চপর্যায়ে।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম গণমাধ্যমকে এসব জানান।

সূত্র বলছে, ক্যাসিনো কিং সম্রাটের অর্থ-সম্পদের একটি লম্বা ফিরিস্তি পাওয়া গেছে। দুবাই, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া ও থাইল্যান্ডে টাকা জমা রেখেছেন সম্রাট। তার ভাই বাদলের নামে রাজধানীর আশপাশে কয়েকটি প্লট ও ফ্ল্যাট কিনে রেখেছেন তিনি।

এছাড়া আরও একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন সম্রাট। ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের জনৈক নেত্রী মৌসুমির সঙ্গে সম্রাটের প্রেমের সম্পর্ক বহুদিনের। মৌসুমির নামে পুলিশ প্লাজায় একাধিক দোকান কিনেছেন সম্রাট।

জেডআই


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর