দেশে দেশে ক্রিকেটারদের বেতন

প্রিন্ট সংস্করণ   |   ১২:৪১, অক্টোবর ২৬, ২০১৯

সম্প্রতি হঠাৎ করে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা ১১ দফা দাবিতে আন্দোলনে নামেন। দাবিগুলোর অন্যতম ছিলো ক্রিকেটারদের বেতন-ভাতা বাড়ানো। বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক সাবিক আল হাসান বর্তমানে মাসিক বেতন পান চার লাখ টাকা। এই বেতনের টাকা কীভাবে দেয় বিসিবি বা বিসিবির আয়ের উৎস কী এবং অন্য দেশের ক্রিকেটাররা কত বেতন পান এইসব নিয়ে লিখেছেন— জিয়া উল ইসলাম

বাংলাদেশ বেতন চার লাখ টাকা
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল জাতীয় ক্রিকেট দল হিসেবে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে। তারা বেঙ্গল টাইগার নামেও পরিচিত। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এই দল পরিচালনা করে। বাংলাদেশ আইসিসির টেস্ট ও একদিনের আন্তর্জাতিক মর্যাদাপ্রাপ্ত স্থায়ী সদস্য দেশগুলোর অন্তর্ভুক্ত। বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বপ্রথম আত্মপ্রকাশ করে ১৯৭৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত আইসিসি ট্রফিতে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে। ১৯৮৬ সালের ৩১ মার্চ এশিয়া কাপে বাংলাদেশ ক্রিকেটে দল সর্বপ্রথম একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচটি খেলে পাকিস্তানের বিপক্ষে। ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ আইসিসি ট্রফি জেতে এবং এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে অংশগ্রহণের সুযোগ পায়। এই দলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বেতন পান চার লাখ টাকা। ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বেতন পান চার লাখ টাকা। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এখন আছেন ১৭ ক্রিকেটার। ‘এ’ প্লাস, ‘এ’, ‘বি’ ও রুকি-এই চারটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে তাদের। ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরিতে আছেন জাতীয় দলের পাঁচজন— মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তারা মাসিক বেতন পান চার লাখ টাকা করে। ‘এ’ ক্যাটাগরিতে রয়েছেন ইমরুল কায়েস, মোস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন। তারা মাসে বেতন পান তিন লাখ টাকা। ‘বি’ ক্যাটাগরির ক্রিকেটাররা মাসপ্রতি বেতন পান দুই লাখ টাকা করে। এই ক্যাটাগরিতে আছেন মুমিনুল হক, লিটন দাস, মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম। আর ‘রুকি’ ক্যাটাগরিতে আছেন আবু হায়দার রনি, আবু জায়েদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, নাঈম হাসান ও খালেদ আহমেদ। এই ক্যাটাগরির ক্রিকেটারদের মাসিক বেতন এক লাখ টাকা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড়
বাংলাদেশে ক্রিকেটে ক্রিকেটাররা ১১ দফা দাবিতে আন্দোলনের বড় যে ব্যাপারটা তা হলো তাদের বেতন বাড়ানো। এই বেতন নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার ফেসবুকে বিতর্ক হচ্ছে কেউ বলছে চার লাখ টাকা বেতন কি কম, অনেক এই গরিব দেশে এত বেতন কেন? আবার কেউ এই আন্দোলনকে যৌক্তিক বলছেন। তাহলে জানি এই ক্রিকেটারদের বেতন আসে কোথা থেকে; কে দেয় তাদের বেতন— সরকার না জনগণ! বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি বিশ্বের পঞ্চম ধনী ক্রিকেট বোর্ড। কীভাবে এই অবস্থায় এলো বাংলাদেশের ক্রিকেট সংস্থা। অনেকে ভেবে থাকতে পারেন, বিসিবির অর্থ জোগান দেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট বা সহায়তা করে সরকার কিংবা জনগণের আয়কর থেকে আসে। আসলে ক্রিকেট বোর্ড স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। সব আয় আসে ক্রিকেট থেকে এবং ক্রিকেটারদের মাধ্যমে। বোর্ডের আয়ের একটি বড় অংশ আসে আইসিসির রাজস্ব থেকে। সেখান থেকে বর্তমান চক্রে ১২ কোটি ৮০ লাখ ডলার পাচ্ছে বিসিবি। আর বিভিন্ন টুর্নামেন্টের লাভ থেকে আসে অর্থ। বিসিবির আয়ের আরেকটি বড় খাত টিভি স্বত্ব। ২০১৪ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত টিভি স্বত্ব পেয়েছে গাজী টিভি। ছয় বছরে এখান থেকে ২০ মিলিয়ন ডলারের বেশি পাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। এ ছাড়া ডিজিটাল রাইটস, টিম স্পন্সর, বিভিন্ন টুর্নামেন্টের স্পন্সর, স্টেডিয়ামের ভেতরে দেয়াল, গ্যালারি, সাইটস্ক্রিন, বাউন্ডারি সীমানায় বিজ্ঞাপন থেকে আসে মোটা অঙ্কের অর্থ। বলা যায় এই সব হচ্ছে বিসিবির আয়ের উৎস। আর বিশ্বে তাকালে বাংলাদেশ থেকে আর্থিকভাবে পিছিয়ে থাকা ক্রিকেট বোর্ড জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটাররা বাংলাদেশ থেকে বেশি বেতন দেয় তাদের ক্রিকেটারদের।

ভারত বেতন ৫৮.৩ লাখ টাকা
ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড বা বিসিসিআই দ্বারা পরিচালিত ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দল। এই দল টেস্ট, ওয়ানডে ইন্টারন্যাশনাল এবং টি-২০ ক্রিকেট দেশ হিসেবে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসির পূর্ণ সদস্য। বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম সুগঠিত ঘরোয়া ক্রিকেট ভারতীয় জাতীয় দলকে আরো সমৃদ্ধ করেছে। ভারত এ ক্রিকেট দল বিভিন্ন সময়ে প্রথম শ্রেণির ও লিস্ট এ ক্রিকেট খেলে থাকে যেখানে ভবিষ্যতের তারকা খেলোয়াড়দের চিহ্নিত করা হয়। এই দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ভারতীয় অধিনায়ক এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয়। আয়ের দিক থেকেও তিনি অধিনায়কদের তালিকায় দুই নম্বরে। বর্তমানে কোহলির মাসিক বেতন ৫৮.৩ লাখ টাকা।

শ্রীলঙ্কা বেতন ১৮.২ লাখ টাকা
শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট আগে নাম ছিলো শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এটি শ্রীলঙ্কা জাতীয় ক্রিকেট দল ও শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত প্রথম- শ্রেণির ক্রিকেট খেলা পরিচালনা করে। কলম্বোর সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাবে এর সদর দপ্তর অবস্থিত। শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটের মানোন্নয়ন, মাঠ পরিচালনা এবং জাতীয় দল নির্বাচনে এটি প্রধান ভূমিকা রাখছে। এই শ্রীলঙ্কার টেস্ট দলের অধিনায়ক চান্ডিমল। অন্য দিকে, এক দিন এবং টি-টোয়েন্টি ম্যাচে শ্রীলঙ্কার নেতা ম্যাথিউজ। দুজনেই মাসিক বেতন পান ১৮.২ লাখ টাকা করে।

পাকিস্তান বেতন ৫ লাখ টাকা
পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড পিসিবি। পাকিস্তান ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা যা টেস্ট ক্রিকেট এবং একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচসহ পাকিস্তানের সমস্ত পেশাদার ক্রিকেট খেলা নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। এটি পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের সকল জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজন ও নিয়ন্ত্রণ করে। পাকিস্তান ক্রিকেট দলের অধিনায়ক আজহার আলী তার রোজগারের নিরিখে তিনি অন্যান্যের থেকে অনেকটাই কম বেতন পান। তার মাসিক বেতন মাত্র পাঁচ লাখ।

দক্ষিণ আফ্রিকা বেতন ২৫.১ লাখ টাকা
দক্ষিণ আফ্রিকার জাতীয় ক্রিকেট দল বহিঃবিশ্বে প্রোটিয়াস নামেও খ্যাত। দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধান ক্রিকেট পরিচালনাকারী সংস্থা ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার মাধ্যমে দক্ষিণ আফ্রিকা বা সাউথ আফ্রিকা দলটি পরিচালিত হচ্ছে। দক্ষিণ আফ্রিকা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসির পূর্ণ সদস্য রাষ্ট্র হিসেবে টেস্ট ক্রিকেট, একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ও টুয়েন্টি-টুয়েন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণের অধিকারী। এই দলের ফ্যাফ ডু প্লেসি। দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক এর মাসিক বেতন ২৫.১ লাখ টাকা।

উইন্ডিজ বেতন ১৫.৪৯ লাখ টাকা
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট সাবেক নাম ছিলো নাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড (ডব্লিউআইসিবি) ওয়েস্ট ইন্ডিজ অঞ্চলের পেশাদার ও শৌখিন ক্রিকেটের সর্বোচ্চ ক্রীড়া পরিচালনা পরিষদ। এক ডজনেরও অধিক ইংরেজি ভাষা-ভাষী ক্যারিবিয় দেশ ও নির্ভরশীল এলাকাসমূহ নিয়ে গঠিত ব্রিটিশ ওয়েস্ট ইন্ডিজ এ ক্রীড়া সংস্থার অন্তর্ভুক্ত। ১৯২০-এর দশকের শুরুতে এ সংস্থাটি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড নামে গঠিত হয় যা এখনো মাঝে মধ্যে পরিচিতি পেয়ে আসছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের অধিনায়ক হলেন জেসন হোল্ডার। তার মাসিক আয় অন্য দেশের থেকে কিছুটা কম। জেসন হোল্ডার মাসিক বেতন পান ১৫.৪৯ লাখ টাকা।

জিম্বাবুয়ে বেতন ৪.৯ লাখ টাকা
জিম্বাবুয়ে জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রতিনিধিত্বকারী দল হচ্ছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। পূর্বেকার জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট ইউনিয়ন বর্তমানে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট নামে পরিচিত। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসির পূর্ণ সদস্যরূপে দলটি টেস্ট, একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট এবং টি-২০ আই খেলায় অংশগ্রহণ করছে। জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের টেস্ট অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক এর মাসিক বেতন ৪.৯ লাখ টাকা।

ইংল্যান্ড বেতন ৬৭.৮ লাখ টাকা
ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল যা ইংল্যান্ড এবং ওয়য়েলস দেশের প্রতিনিধিত্ব করে। ১৯৯২ সালের আগ পর্যন্ত ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল স্কটল্যান্ড দেশেরও প্রতিনিধিত্ব করতো। ১ জানুয়ারি, ১৯৯৭ সাল থেকে দলটি ইংল্যান্ড এবং ওয়লেস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) কর্তৃক পরিচালিত হয়ে আসছে। এর আগে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাব বা এমসিসি কর্তৃক ১৯০৩ থেকে ১৯৯৬ সালের শেষার্ধ পর্যন্ত পরিচালিত হয়েছিল। এই ইংল্যান্ডের টেস্ট এবং এক দিনের দলের অধিনায়ক জো রুট এবং ইয়ন মরগান : রুট টেস্টের এবং মর্গান এক দিন এবং টি-টোয়েন্টি দলের নেতা। দুজনেই সমান বেতন পান। তাদের মাসিক আয় ৬৭.৮ লাখ টাকা।

অস্ট্রেলিয়া বেতন ৫৭ লাখ টাকা
অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল অস্ট্রেলিয়ার পুরুষদের জাতীয় ক্রিকেট দল হিসেবে পরিচিত। টেস্ট ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের সাথে যুগ্মভাবে বিশ্বের প্রাচীনতম দল হিসেবে এর পরিচিতি রয়েছে। ১৮৭৭ সালে দলটি সর্বপ্রথম টেস্ট ক্রিকেট খেলায় অংশ নেয়। এ ছাড়াও, দলটি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট এবং টুয়েন্টি-২০ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে থাকে। ২০০৬ ও ২০০৯ সালে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল দুইবার আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি প্রতিযোগিতায় জয়লাভ করে। একমাত্র দল হিসেবে তারা পরপর দুইবার চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি প্রতিযোগিতায় জয়ী হয়। এই দলের অধিনায়ক টিম পেইন। স্বাভাবিকভাবেই বেতনের অঙ্কটাও বেশ বড়। বর্তমানে তিনি মাসিক ৫৭ লাখ টাকা বেতন পান।

নিউজিল্যান্ড বেতন ২৮.৫ লাখ টাকা
নিউজিল্যান্ড জাতীয় ক্রিকেট দল নিউজিল্যান্ডের প্রতিনিধিত্বকারী জাতীয় ক্রিকেট দল। দলটিকে সংক্ষেপে ব্ল্যাক ক্যাপস নামে ডাকা হয়ে থাকে। দলটি ১৯৯৮ সালে ব্যবসায়িক সমপ্রচার স্বত্ত্বজনিত কারণে পরিচিতি পায়। ক্লিয়ার কমিউনিকেশন্স নিউজিল্যান্ড দলের নতুন নাম নির্বাচনের লক্ষ্যে প্রতিযোগিতার আয়োজনের মাধ্যমে এ নাম নির্ধারণ করে। পরবর্তীতে জাতীয় দলকে নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট কর্তৃপক্ষও আনুষ্ঠানিকভাবে ব্ল্যাক ক্যাপস নাম অনুমোদন করে। ১৯৩০ সালে ক্রাইস্টচার্চে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট ক্রিকেট খেলার মাধ্যমে দলটির অভিষেক ঘটে। এর ফলে তারা বিশ্বের পঞ্চম টেস্ট ক্রিকেটভুক্ত দলের লাভ করেছিল। এই দলের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন । তার মাসিক আয় ২৮.৫ লাখ টাকা।

এমএআই


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর