দাকোপে আধুনিক পদ্ধতিতে ফসল উৎপাদনে সফলতা

এসএম মামুনুর রশিদ, দাকোপ (খুলনা)   |   ০৯:০০, অক্টোবর ২৯, ২০১৯

দেশের উপকূলীয় লবণাক্ত অঞ্চলে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে সমন্বিত প্রকল্পের মাধ্যম অসময়ে ধান মাছ তরমুজ এবং বিভিন্ন সব্জি উৎপাদনের এই সফলতা চাষিদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।

এ ধারনের চাষাবাদের সুফল সম্পর্কে চাষিরা অবহিত হলে লবণাক্ত উপকূলীয় অঞ্চলকে উৎপাদনের আওতায় আনা সম্ভব। চাষিদের অর্থনৈতিক সফলতা এবং দেশের খাদ্যের চাহিদা মিটাতে সফল এই পদ্ধতিতে চাষাবাদে চাষিদের উদ্বুদ্ধ করতে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

সিএসআইআরও অস্ট্রেলিয়ার আর্থিক সহযোগিতায় বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট ব্রি’র সার্বিক তত্ত্ববধানে উপকূলীয় লবণাক্ত অঞ্চল খুলনা জেলার দাকোপের পানখালী গ্রামে অসময়ে ধান মাছ তরমুজসহ একই সাথে বিভিন্ন সব্জি চাষের প্রদর্শনী প্রকল্প গ্রহণ করা হয়।

সোমবার সফল ওই প্রকল্প পরিদর্শন এবং লবণাক্ত এলাকায় ফসলের নিবিড়তা বৃদ্ধি করনের লক্ষ্যে আয়োজিত চাষিদের মাঠ দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রজেক্ট লিডার সিএসআইআরও অস্ট্রেলিয়া ড. মো. মাইনউদ্দিন উপরোক্ত কথা বলেন। ব্রি গাজীপুরের প্রধান গবেষক ড. মো. মনিরুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন ব্রি’র গবেষক জাহাঙ্গির কবির, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মেহেদী হাসান, পানখালী ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল কাদের, সফল চাষি অখিল হালদার, প্রকল্পের মাঠ কর্মি শরিফুল গাজী।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ব্রি’র সিনিয়র বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা বেলাল হোসেন। উপকূলীয় দাকোপ অঞ্চলে পরীক্ষা মূলকভাবে স্থানীয় চাষি অখিল হালদার তার জলবদ্ধ ৫ বিঘা জমিতে ধানের সাথে মাছ, মাচাই পদ্ধতি তরমুজ এবং বস্তা পদ্ধতি ব্যবহারে বিভিন্ন প্রজাতির সব্জি চাষ করে।

এ অঞ্চলে নতুন এই সমন্বিত পদ্ধতির চাষাবাদের সফলতা প্রসঙ্গে চাষি অখিল হালদার বলেন, নতুন পদ্ধতির চাষাবাদে কেউ যখন সাহস দেখাচ্ছিলনা তখন আমি বলতে পারেন অনেকটা ঝুঁকি নিয়ে ৫ বিঘা জমিতে ৭০ হাজার টাকা বিনিয়োগে চাষাবাদ করি। বর্তমানে তিনি সমন্বিত ওই উৎপাদন থেকে লক্ষাধিক টাকা লাভবান হবেন বলে আশাবাদী।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার ভাষ্য মতে বর্তমানে চাষিদের মাঝে এই পদ্ধতি বেশ সাড়া পড়েছে। আগামীতে দাকোপের অন্য এলাকা এই চাষাবাদের আওতায় আসবে বলে তিনি আশা করছেন।

উল্লেখ্য উপকূলীয় এক ফসলি জমির ফলনে মানুষ যখন দিশাহারা ঠিক তখন আধুনিক সমন্বিত পদ্ধতির এই চাষাবাদ এ অঞ্চলের কৃষিতে বৈপ্লবিক পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিচ্ছে।

এমআর


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর