আগাম শীতের সবজিতে কৃষকদের ঘুরে দাড়ানোর স্বপ্ন

মাজহারুল ইসলাম তানিম, বিরামপুর (দিনাজপুর)   |   ০২:২৫, নভেম্বর ০৪, ২০১৯

দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলায় বিভিন্ন হাট-বাজারে শীতের আগাম সবজি উঠতে শুরু করেছে। এসব সবজি ভ্যান, রিকশা ভটভটি যোগে সরাসরি বাজারে উঠতে শুরু করেছে। দামও ভাল।

কৃষকেরা আগাম লাউ বেগুন, শীম, মুলা, ফুলকপি, বাধাকপি, শসাসহ বিভিন্ন সবজি চাষ করছেন। ধান চাষ করে বড় ধরণের লোকসান গুনে শীতের আগাম সবজি চাষ করে তা পুষিয়ে নেয়ার প্রত্যাশা করছেন কৃষকেরা।

বিরামপুর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা নিকসন চন্দ্র জানান, বিরামপুর উপজেলায় চলতি খরিপ-১ মৌসুমে ১ হাজার ২শত হেক্টোর জমিতে শাখ-সবজি চাষাবাদের সম্ভবনা রয়েছে। এর মধ্যে শীতের আগাম সবজি চাষ হয়েছে ১ শত ৫০ হেক্টোর ।চলতি অক্টোবর মাসের ১ম সপ্তাহ থেকে শুরু হয়েছে রবি মৌসুম। মৌসুমের শুরুতেই সবজি রোপন ও পরিচর্যার কাজ করছেন কুষকরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার শাখা যমুনা নদীর চরে মাহমুদ পুর, জোতবানী, ভেলার পাড়, পলিপ্রয়াগ পুর, চকবসন্তপুর, কৃষ্টপুর, হাবিবপুর এলাকায় শীতের আগাম সবজি মুলা, বাধাকপি, ফুলকপি, বেগুন , পাটাশাখ, লাল শাখ, শীম, লাউশাখ প্রভৃতি শাখ-সবজিতে খেত ভরে গেছে। চাষিরা সবজি পরিচর্যার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছে।

উপজেলার কাটলা গ্রামের আবু সাঈদ, পারভবানীপুর গ্রামের রইচ উদ্দিন বলেন, পর পর দুই বছর ধান চাষ করে তারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন ।

কেশবপুর গ্রামের নওশাদ বলেন, বিগত বছর ৩ শত টাকা মন দরে ধান বিক্রি করে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন বলে এবার জমিতে আগাম শীতকালীন সবজি চাষ করে লাভের মুখ দেখছেন।

সফল চাষি আবু সাঈদ জানান, ধান গম চাষ করে আমরা খুব একটা লাভবান হতে পারিনি। ধান চাষ করে লোকসান গুনতে হয়। তাই শীতের শুরুতে শীতকালীন সবজি বাজারে তুলতে পারলে দাম ভালো পাওয়া যায় এবং অর্থনৈতিক ভাবে বেশ লাভ হয়।

এবার আগাম শীতকালীন সবজি চাষ করে দাম ভাল পাওয়ায় কৃষকরা লাভবান হচ্ছেন। বিগত দুই বছরের ধান আবাদের ক্ষতির হিসেব পুষিয়ে ঘুরে দাড়ানোর স্বপ্ন দেখছেন কৃষকরা।

এমআর


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর