রাজকোটেই সিরিজ জিততে চায় টাইগাররা

প্রিন্ট সংস্করণ   |   ১১:৪৬, নভেম্বর ০৬, ২০১৯

হাতছানি দিচ্ছে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার। আগামীকাল ভারতকে হারাতে পারলেই ইতিহাস রচনা করবে টাইগাররা। ভারতের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ জেতার পর এবার মুশফিকদের সুযোগ প্রথম সিরিজ জেতার। এই ম্যাচ জিততে পারলেই রাজকোটের সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে ইতিহাস গড়বে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ জিততে হলে বাংলাদেশের কি করতে হবে তা জানতে সাবেক ক্রিকেটারদের সাথে কথা বলেছেন রাজিব রহমান

রোহিত শর্মাকে নজরে রাখতে হবে: গাজী আশরাফ হোসেন লিপু
ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিততে হলে বাংলাদেশকে স্বাভাবিক খেলাটাই খেলতে হবে বলে মনে করেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু। তবে ভারতকে হারাতে হলে বিশেষ করে অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে নজরে রাখতে হবে। তাকে আগে আউট করতে পারলে সেটি হবে বাংলাদেশের জন্য ম্যাচ জেতার টানিং পয়েন্ট। তার মতে সিরিজ জেতার জন্য দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশকে আলাদা চাপ নিয়ে খেলতে হবে। এই চাপ সামলে ওঠার জন্য সবাইকে প্রথম ম্যাচের মতো দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হবে। বিশেষ করে- ওপেনিং জুটি যদি ভিত গড়ে দিতে পারে তাহলে সামনের ব্যাটসম্যানদের থেকেও রান আসবে। প্রথম ম্যাচের মতো সৌম্য সরকার যদি ঠাণ্ডা মাথায় খেলে তাহলে তার ব্যাট থেকেও ভালো রান আসবে বলে আশাবাদী সাবেক এই অধিনায়ক। অন্যদিকে বাংলাদেশের তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়ে বেশি স্বপ্ন দেখেন গাজী আশরাফ। তার চোখে আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, আফিফ হোসেন এবং মোহাম্মাদ নাঈম সম্ভাবনাময় ক্রিকেটার। ওপেনিং জুটিতে মোহাম্মাদ নাঈম লিটন দাসের সাথে ভালো করবে বলেও বিশ্বাস তার। নাঈম ভালো মারতে পারে তার ওপেনিং জুটিতে আগামীতে হতে পারে তামিমের সঙ্গী। তাছাড়া নাঈমের হাতেও ভালো শট রয়েছে বলেও জানান সাবেক অধিনায়ক। অন্যদিকে আফিফ হোসেন আর বিপ্লব বাংলাদেশ দলের জন্য প্লাস পয়েন্ট। অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন প্রথম ম্যাচে তিন ওভারে ১১ রান দিয়ে নিয়েছেন এক ইউকেট। ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত খেলেন আফিফ। অন্যদিকে বিপ্লব তিন ওভারে ২২ রান দিয়ে নিয়েছেন দুই উইকেট। নিজেদের মাটিতে ভারতকে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে হারানোর অন্যতম নায়ক ছিলেন শরীয়তপুরের ছেলে এই আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। ঘরের মাঠে ত্রিদেশীয় সিরিজে হুট করে ডাক পাওয়ার আগে কোনো হিসাবেই ছিলেন না।

ভারত বেশি চাপ নিয়ে খেলবে: মোহাম্মাদ রফিক
এই প্রথম ভারতের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে ভারতকে ৭ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজ জেতার অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে টাইগাররা। বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মাদ রফিক মনে করেন, প্রথম ম্যাচ হেরে বাংলাদেশের চেয়ে ভারত বেশি চাপে থাকবে। তাই এই সুযোগটাই কাজে লাগাতে হবে বাংলাদেশকে। রফিকের চোখে বাংলাদেশকে তিন ফরম্যাটেই ভালো করতে হবে। বিশেষ করে- ভারতকে হারানো ছকটা মাঠে নয় ড্রেসিং রুম থেকেই করে যেতে হবে। তা না হলে প্লানিংয়ে ভুল হয়ে যেতে পারে। বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারত আলাদা প্লানিং করবে বলেও জানান এই ক্রিকেটার। তাই সতর্ক হয়েই বাংলাদেশকে মাঠে নামতে হবে। ভারত প্রথম ম্যাচ হারার পর দ্বিতীয় ম্যাচে তাদের খেলোয়াড়ে পরিবর্তন আনতে পারে। নতুন যে খেলোয়াড় আনতে পারে তাদের নিয়েও বাংলাদেশকে ভাবার পরামর্শ দেন রফিক। ২০০৯ সালের জুনে ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে অভিষিক্ত হয় বাংলাদেশের। এরপর ৮টি ম্যাচ খেললেও জয় পায়নি টাইগাররা। সর্বশেষ ১৯ মাস আগে ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে মুশফিকরা। সেবারও হারতে হয় বাংলাদেশকে। সাকিব দলে না থাকায় বাংলাদেশে পিছিয়ে থাকবে বলে ধরে নিয়েছিলেন অনেকেই। আবার অনেকেই ভেবেছেন সাকিবের অভাব এতটাই বড় যে সেটা পূরণ করা প্রায় অসম্ভব। দিল্লির ভয়াবহ বায়ুদূষণে ভারত ও বাংলাদেশের প্রথম টি-টোয়েন্টি শঙ্কায় পড়েছিল। বৃষ্টি হওয়ার পর দুপুর থেকে ধোঁয়া ও কুয়াশায় ছেয়ে যায় অরুন জেটলি স্টেডিয়ামের আশপাশের এলাকা। ভারতের ক্রিকেট সমর্থকরা ম্যাচটি বাতিলের দাবি জানান। তবে সব শঙ্কা উড়িয়ে মাঠে গড়ায় ছেলেদের ক্রিকেটে ১০০০তম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ।

বাংলাদেশ সিরিজ জিতবে: হান্নান সরকার
প্রথম ম্যাচের পারফর্ম যদি দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ ধরে রাখতে পারে তাহলে ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতবে বলে আশাবাদী বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ক্রিকেটার হান্নান সরকার। তিনি মনে করেন, বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা যদি তিন বিভাগেই ভালো করতে পারে তাহলে আগামীকাল ম্যাচ জিতে সিরিজ জয় নিশ্চিত করবে বাংলাদেশ। টাইগারদের সিরিজ জিততে হলে কি কি করতে হবে বলে হান্নান সরকার বলেন, যদি ভারতের দুর্বল পয়েন্টগুলো বের করে সেখানে বাংলাদেশ আঘাত করতে পারে তাহলে ম্যাচে ফিরবে বাংলাদেশ। তাছাড়া ভারত চাইবে এই ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতা আনতে। এ জন্য আলাদা চাপেও থাকতে হবে স্বাগতিকদের। দলের নতুন তিন ক্রিকেটার আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, আফিফ হোসেন এবং মোহাম্মাদ নাঈম দলের জন্য সম্ভাবনাময় ক্রিকেটার। ওপেনিং জুটিতে মোহাম্মাদ নাঈম লিটন দাসের সাথে ভালো করবে বলেও বিশ্বাস তার। নাঈম ভালো মারতে পারে তার ওপেনিং জুটিতে আগামীতে হতে পারে তামিমের সঙ্গী। তাছাড়া নাঈমের হাতেও ভালো শট রয়েছে বলেও জানান সাবেক ক্রিকেটার। অন্যদিকে আফিফ হোসেন আর বিপ্লব বাংলাদেশ দলের জন্য প্লাস পয়েন্ট। অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন প্রথম ম্যাচে তিন ওভারে ১১ রান দিয়ে নিয়েছেন এক ইউকেট। ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত খেলেন আফিফ। অন্যদিকে বিপ্লব তিন ওভারে ২২ রান দিয়ে নিয়েছেন দুই উইকেট। তাই এদেন নিকে তাকিয়ে থাকবে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচের মতো মুশফিকও যদি ভালো কিছু করতে পারে তাহলে সেটি হবে বাংলাদেশ দলের জন্য বিশেষ কিছু। দলের হাল ধরার ক্ষেত্রে মুশফিরে বিকল্প নাই বলেও জানান হান্নান সরকার। মাহমুদুল্লাহও দলের জন্য বিশেষ কিছু।

এমএআই


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর