কোষ্ঠকাঠিন্য-অর্শ: কী করবেন কী করবেন না

আমার সংবাদ ডেস্ক   |   ০১:২১, নভেম্বর ০৬, ২০১৯

অনেক অসুখের মূলেই আছে ভুল খাওয়াদাওয়ার অভ্যেস। অনেকেই শাকসবজি প্রায় খান না বললেই চলে। আবার অনেকের পানি খেতে অনীহা। বেশির ভাগ সময়ে নিজেদের বদভ্যাসের কারণেই অসুখ চেপে বসে। তবে একটু সতর্ক হলেই এ রোগের কষ্ট দূর করা যায়। কোষ্ঠকাঠিন্য ও অর্শ হলে কী করবেন কী করবেন না-

*দিনে ৩–৩.৫ লিটার পানিপান দরকার। শীতের সময় কিছুটা কম হলেও চলে।

*রোজকার ডায়েটে রাখুন পাঁচ রকমের শাকসবজি। আলু-পেঁয়াজ ছাড়া সময়ের সব রকমের শাকসবজি খেতে হবে। ঢ্যাঁড়শ কনস্টিপেশন কমাতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেয়। যাঁরা কোষ্ঠকাঠিন্যে ভুগছেন তাঁরা নিয়ম করে দুবেলা ঢ্যাঁড়শ খেলে সমস্যা থেকে রেহাই পাবেন।

*পালংশাক, নটেশাক সমেত সময়ের শাক থাকুক মধ্যাহ্নভোজনে। কুমড়ো, লাউ, পটল-সহ সময়ের শাকসবজি খেতে হবে। খোসা সমেত শাকসবজি খাওয়া উচিত।

*শসা খান খোসা সমেত। কলা, পেয়ারা, লেবু, আম, জাম-সহ বেশির ভাগ ফলেই ফাইবার আছে। নিয়ম করে দিনে ৩/৪টি ফল খেলে ভালো হয়।

*বাথরুমে গিয়ে অনেক ক্ষণ বসে চাপ দেবেন না। এতে সমস্যা বাড়ে।

*নিয়মিত ব্যায়াম করে ওজন ঠিক রাখুন। বাড়তি ওজন পাইলসের সমস্যা বাড়িয়ে দেয়।

*ভারী জিনিস তুলবেন না।

*ধূমপানের অভ্যাস থাকলে ছেড়ে দিতে হবে।

*মদ্যপানে সমস্যা বাড়ে।

*ভাজা খাবার এড়িয়ে চলুন।

*কাবাবের নামে ঝলসানো মাংস খাবেন না।

*ময়দার খাবার খেলে সমস্যা বাড়ে। চাউমিন ময়দায় তৈরি হয়। মোমোও তাই। সুতরাং এই ধরনের খাবার বাদ দিন।

*কেক, বিস্কুট মাত্রা রেখে খান। পরিবর্তে খই, ওটস খেতে পারেন।

*কনস্টিপেশন হলে তা সারাবার চেষ্টা করুন।

*পাইলস হলে এটা ওটা করে সময় নষ্ট না করে শুরুতেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

এমএআই


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর