যেভাবে পরিচালকের টাকা হাতিয়ে নেন মাহি!

বিনোদন প্রতিবেদক   |   ০৩:৪৭, নভেম্বর ০৬, ২০১৯

বাংলা চলচ্চিত্রের হিট নায়িকা মাহিয়া মাহি। এবার তার বিরুদ্ধে আঙুল তুলেছেন ‘অবতার’ সিনেমার পরিচালক মাহমুদ হাসান শিকদার। তারই পরিচালিত ছবি থেকে বাড়তি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ এনেছেন পরিচালক।

অভিযোগ করে মাহমুদ শিকদার বলেন, মাহি ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিতে যে পোশাক পরে একটি গানে অংশ নিয়েছিলেন, সেটি পরে ‘অবতার’ সিনেমার গানেও পরেন। অথচ এই পুরানো ড্রেস ক্রয়ের কথা বলে তিনি আমার কাছ থেকে ২৫ হাজার টাকা নেন। এমনকি এই সিনেমায় পুরনো পোশাক নতুন বলে চালিয়ে কয়েক লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেন মাহি। পরবর্তীতে পোশাকগুলো ফেরতও দেননি।

তবে ওই সময় প্রতিবাদ করেননি কেন? উত্তরে পরিচালক বলেন, মাহি শুটিং বন্ধ করে দিতে পারে, সেই ভয়ে।

মাহির বিরুদ্ধে আঙুল তুলে মাহমুদ শিকদার আরও বলেন, মাহি আমাকে পোশাক রেডি করার আগেই আগাম বাজেট দেন। তিনটি পোশাকের জন্য তিনি মোট ৭৫ হাজার টাকা নেন। মূলত এটি তার বাড়তি আয়ের রাস্তা।

পরিচালক দাবি করেন, শুটিংয়ের সময় মাহি যে পোশাকগুলো পরেছেন, তার একটি ছেঁড়া ছিল। এবং এটি ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবির পোশাক ছিল। তবে সে বাধ্য করেছেন টাকা দিতে। শুধু পোশাকই নয় যাতায়াত ভাতা’সহ নানান ইস্যুতে পরিচালক ও প্রযোজককে জিম্মি করেন মাহি।

এই পরিচালকের দাবি, শুটিংয়ের সময় তিনি (মাহি) উত্তরা থেকে আশুলিয়া যেতে কনভেন্স নিয়েছেন ৪ হাজার টাকা, মানিকগঞ্জ যেতে নিয়েছেন ৮ হাজার টাকা। অথচ ছবিটি মুক্তির সময় দেখাই মিলেনি তার।

মাহমুদ শিকদার আরও জানান, প্রচারের সময় মাহির সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোনটি রিসিভ করেননি। মাহি যদি প্রচারণায় আসতেন, তাহলে ছবিটির রেসপন্স ভালো পাওয়া যেত।

এদিকে পরিচালকের অভিযোগ পুরোপুরি মিথ্যা আখ্যা দিয়ে দৈনিক আমার সংবাদকে মাহি বলেন, পরিচালক যদি তার অভিযোগ প্রমাণ করতে পারেন, তাহলে পোশাকের টাকা ফেরত দেব। তার সঙ্গে যে চুক্তি হয়েছে, সে অনুযায়ী আমি কাজ করেছি। চুক্তির সময় যাবতীয় বিষয়গুলো উল্লেখ ছিল। এখন যদি তিনি মিথ্যা অভিযোগ আনেন, তাহলে আমার কী করার আছে।

জেডআই


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর