পিয়াজের দাম বৃদ্ধি, বাণিজ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   ০১:১৭, নভেম্বর ১৫, ২০১৯

হু হু করে বেড়েই চলছে পিয়াজের দাম। দিনে দিনে পেঁয়াজ সাধারণ ক্রেতার নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে। বর্তমানে বাজারে প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২১০ থেকে ২২০ টাকা। গত এক সপ্তাহ আগে প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১২০ টাকা। সে হিসাবে শুধু এক সপ্তাহের ব্যবধানে রান্নায় অতি প্রয়োজনীয় এ মসলা জাতীয় পণ্যটির প্রতিকেজি দাম বেড়েছে ৯৫ টাকা।

পিয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী। একইসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির পদত্যাগের দাবি জানিয়েছে জামায়াতে ইসলামী।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) সংগঠনটির সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, অযৌক্তিভাবে পিয়াজের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধিতে দেশের ভুক্তভোগী জনগণসহ আমরা সবাই গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। পিয়াজের মূল্য সাধারণ জনগণের নাগালের বাইরে চলে গেছে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, কয়েক দিন আগে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছিলেন, ১০০ টাকার কম কেজি দরে পিয়াজ পাওয়ার সম্ভাবনা আপাতত নেই এবং বিদেশ থেকে পিয়াজ আমদানি করা হচ্ছে। পিয়াজের চালান দেশে এসে পৌঁছালে পিয়াজের দাম কমে আসবে।

কিন্তু আমরা উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি যে, বর্তমানে বাজারে প্রতি কেজি পিয়াজ ২০০ টাকা থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। পিয়াজের মূল্যবৃদ্ধিতে জনগণের নাভিশ্বাস উঠেছে। জনগণের মধ্যে চরম হতাশা বিরাজ করছে।

জামায়াতের প্রশ্ন, পিয়াজের বাজার কারা নিয়ন্ত্রণ করছে? তারা কী এতই শক্তিশালী যে, সরকার তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না? পিয়াজের মূল্যবৃদ্ধি অসাধু ব্যবসায়ীরা নাকি সরকার নিজেই বা তাদের দলীয় লোকদের দ্বারা সিন্ডিকেট তৈরি করে বাড়াচ্ছে?

পিয়াজের দাম জনগণের ক্রয়সীমার মধ্যে সীমিত রাখতে না পারাটা সরকারের চরম ব্যর্থতা উল্লেখ করে এ দায় কাঁধে নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রীর অবিলম্বে পদত্যাগ দাবি করেছে জামায়াত।

এদিকে, বাজারে পিয়াজের মূল্য বাড়ার ঘটনায় বৃহস্পতিাবার (১৪ নভেম্বর) সংসদে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সরকার ও বিরোধী দলের এমপিরা। বাজারে ঘাটতি না থাকলেও সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে কারসাজির মাধ্যমে মূল্য বাড়ানো হচ্ছে। তাই কারসাজির সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা জরুরি।

বৃহস্পতিবার সংসদ অধিবেশনে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে তারা এমন মন্তব্য করেন। সংসদ অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে আলোচনার সূত্রপাত করেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, এতো সুদক্ষ একটি মন্ত্রিসভা, তার দু’জন মন্ত্রী এখানে আছেন। তাদের অনুরোধ করতে চাই, পিয়াজের ঝাঁঝ বেশি হয়ে গেছে।

জনগণের মধ্যে একটা রিঅ্যাকশন হচ্ছে। আজকে পর্যন্ত যে খবর আছে, তাতে পিয়াজের কেজি প্রায় ২০০ টাকা হয়ে গেছে। তিনি বলেন, আমরা এতো জনপ্রিয় সরকার, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে কাজ করে যাচ্ছি। কি কারণে প্রতিদিন পিয়াজের দাম বেড়ে যাচ্ছে?

বাণিজ্যমন্ত্রী যখন সংসদে বলেন ১০০ টাকার নিচে নামবে না, তখন তো ব্যবসায়ীরা সুযোগ পেয়ে যায়। মন্ত্রী প্রয়োজনে বিদেশ থেকে আমদানি করছেন বলেছেন। তারপরেও কেন দাম বাড়ছে? ব্যাপারটা বোধগম্য নয়।

তিনি আরো বলেন, এতে আমাদের সুনাম ক্ষুণ্ন হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী ভারতে যেয়ে বলেছিলেন পিয়াজের ঝাঁঝ বেড়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী অনুরোধ করেছিলেন পিয়াজের রপ্তানি বন্ধ করবেন না। এখন পিয়াজের ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া উচিত, আরো তৎপর হওয়া উচিত।

এমএআই


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর