পশ্চিমবঙ্গের এনআরসি নিয়ে মমতার উদ্বেগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক   |   ০৮:৫০, নভেম্বর ১৯, ২০১৯

পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি করতে দেয়া হবে না বলে জোরালো কন্ঠে হঙ্কার দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন, যারা কলকাতায় এসে বসবাস করছেন, যাদের রেশন কার্ড, আধার কার্ড আছে তাদের পশ্চিমবঙ্গ ছেড়ে যেতে হবে না। পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবে না। সোমবার (১৮ নভেম্বর) কোচবিহারে এক বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

তবে বিজেপি নেতারা বলছেন অন্য কথা। পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হলেও কোন উদ্বাস্তু বা শরণার্থীকে পশ্চিমবঙ্গ থেকে তাড়ানো হবে না। তাদের যারা ইতোমধ্যেই এই রাজ্যের বাসিন্দা হয়েছেন তাদের কোন ভয় নেই।

শরণার্থীদেরও কোন প্রমাণ দিতে হবে না। তাদের শুধু একটি ফরম পূরণ করতে হবে। ফরমে উল্লেখ করতে হবে কবে সে পশ্চিমবঙ্গে এসেছে। তবেই পাবে নাগরিকত্ব।

শরণার্থীদের নাগরিকত্বের আশ্বাস দিয়ে আবার তারাই বলছেন, বেআইনিভাবে অনুপ্রবেশকারীদের ঠাঁই দেয়া হবে না, তাদের তাড়ানো হবে।

তেলেঙ্গানা রাজ্যের হায়দারাবাদের একটি দল অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন। দলটির নেতৃত্বে রয়েছেন আসাউদ্দিন ওয়েইসি। তিনি পার্লামেন্টের একজন সদস্য।

সম্প্রতি বিহারের পূর্ণিয়ায় কিষাণগঞ্জ বিধানসভায় তার দল জিতে যায়। বিহার রাজ্য পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গের লাগোয়া। তাই উত্তরবঙ্গের কোঁচবিহারে তারা পোস্টারিং করে মুসলমানদের এনআরসি করার ভয় দেখায়।

সে কারণে একটু হলেও নড়ে বসেছেন পশ্চিমবেঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা। মুসলিম ভোটব্যাংকে বিরোধীদের হস্তক্ষেপের ভয়। তাই এনআরসির ব্যাপারে তার এত উদ্বেগ।

এসএ


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর