১৩ কোটি টাকার ফোনালাপ প্রসঙ্গে নূরের মন্তব্য (ভিডিও)

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   ১২:০৫, ডিসেম্বর ০৪, ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুরর টেলিফোন কথোপকথনের একটি অডিও ক্লিপ ফাঁস হয়েছে। অডিও ক্লিপটি ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

অডিও ক্লিপে ভিপি নুরকে জনৈক এক প্রকল্প কর্মকর্তার কাছে তদবির এবং প্রবাসী এক বাংলাদেশির সঙ্গে টেলিফোনে ১৩ কোটি টাকা লেনদেনের বিষয়ে কথা বলতে শোনা গেছে।

ভিপি নুরের সঙ্গে কথোপকথনে প্রবাসী ওই বাংলাদেশি বলেন, আমি কিছু টাকা-পয়সা উঠিয়ে পাঠাতে চাচ্ছি। আমি জানি তোমাদের খুব টাকা-পয়সার প্রয়োজন।

এসময় ভিপি নুর বলেন, এই মানে যতটুকু সৎ থাকা যায় চেষ্টা করছি। তখন ওই প্রবাসী টাকা পাঠানোর জন্য ভিপি নুরের কাছে কিছু প্রয়োজনীয় তথ্য চান।

এরপর ভিপি নুর বলেন, আপনি বলছেন, ঠিক আছে-খুশি হয়েছি। এসময় হোয়াটসঅ্যাপে কল দিচ্ছি বলেও জানান ওই প্রবাসী।

এর আগে, অডিও ক্লিপের শুরুতে এক প্রকল্প কর্মকর্তার কাছে তদবির করতে শোনা যায় ভিপি নুরকে।

এদিকে, ফোনালাপ নিয়ে প্রচারিত সংবাদে নুরের অডিও ক্লিপটি যে তার, সেটা তিনি স্বীকার করেছেন। ফাঁস হওয়া অডিও ক্লিপ প্রসঙ্গে নুর বলেন, ‘আমার একটি ফোনালাপ ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় বিকৃতভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। আমার পুরোপুরি কথা না শুনিয়ে কিছু অংশ কেটে প্রচার করেছে, যা সাংবাদিকদের নৈতিকতার সাথে যায় না। আমি এর বিরুদ্ধে একটি প্রতিবাদলিপি ও উকিল নোটিশ পাঠাব।’

ফোনালাপের বিষয়ে নুর ব্যাখা করেন, ‘আমার এক আন্টি অনেক আগে থেকেই কন্সট্রাকশনের বিজনেস করেন। এলাকায় আমার মামার ছেলে মারা যাওয়ায় আন্টি গিয়েছিলেন। তার একটি প্রকল্পে ১৩ কোটি টাকার মসজিদ নির্মাণের কাজ ছিল। ওই কাজের জন্য ব্যাংক গ্যারান্টি দেয়ার লাস্ট তারিখের আগের দিন আন্টি আমাকে ফোন দেন, পরিচিত কারো মাধ্যমে যাদের লাইসেন্স আছে তাদের মাধ্যমে যেন ব্যাংক গ্যারান্টি করে রাখি। যেহেতু লাস্ট দিন, তখন আমি আমার পরিচিত এক ভাইকে ফোন দিয়ে বলি কাজটি করতে পারবে কি-না, যেহেতু তিনি কন্ডাক্টর। এই ছিল আলাপ।’

নুর বলেন, ‘কিন্তু ওখানে (টেলিভিশন চ্যানেল) ফোনালাপের আংশিক তথ্য তুলে ধরেছে। ওখানে কিন্তু ক্লিয়ার করা নেই যে আমি কাউকে কাজের কথা বলছি বা কারো কাছে কাজ চাচ্ছি বা কাউকে সুপারিশ করছি সেটা না। আন্টি বলছেন যে, তার কাজের একটি ব্যাংক গ্যারান্টি দিতে পারবে কি-না? কারণ কন্সট্রাকশন কাজ করলে ব্যাংক গ্যারান্টি লাগে কাজের পারসেন্টেজ (শতকরা হার) অনুযায়ী।’

তিনি আরও বলেন, ‘এরপরে আরেকটি বিষয় যোগ করছে, একজন বলছিল যে আমাকে হেল্প করতে চায়। নাম, ই-মেইল চাইছে। সেখানে কিন্তু আমার কোনো উত্তর নেই। যেকোনো মানুষ যদি আমাকে ফোন দিয়ে বলে যে আপনার কোনো সাপোর্ট লাগলে হেল্প করব আমরা। আমি কী বলছি সেটা না দিয়ে তার অংশ কাট করে দিয়েছে। আমার মনে হচ্ছে এটা উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে তারা আমাকে বিব্রত করার জন্য এই ধরনের আংশিক অংশ প্রকাশ করেছে। এবং যেটা বলেছে এটাও সত্যও নয়। আমি এটার প্রেস রিলিজ দিয়ে এটা ক্লিয়ার করব। ওদেরকেও উকিল নোটিশ দেব।’

ভিপি নুর বলেন, ‘আমাকে ছাত্রলীগের কেউ ফোন দিয়ে বলে ভাই কেমন আছেন? তারপর যদি বলে আমি আপনাকে হেল্প করতে চাই। আমি আপনাকে টাকা পাঠাব। আপনার মেইল এড্রেস দেন, নাম -ঠিকানা দেন। আমি সেখানে কী বলছি সেটার রিপ্লাইও শোনা লাগবে। তার অংশটুকু শুনেই জাস্টিফাই করা যাবে না। আমার অংশটুকুও তো শুনতে হবে। আমি ডাকসু ভিপি আমারও বিভিন্ন জায়গা থেকে ফোন আসে। একটা লোক ফোন দিয়ে বলছিল আমি আপনাকে সহযোগিতা করতে চাই। কিন্তু আমি তাকে বলে দিছি আমরা অপরিচিত কারও কাছ থেকে সহযোগিতা নেব না। যদি প্রয়োজন হয় আমরা আপনাকে জানাবো। আমার উত্তরটা ছিল এটা। কিন্তু সেখানে তারা এটা যোগ করেনি।’

 

এমএআই

 


আরও পড়ুন

সর্বশেষ সংবাদ

সব খবর