কৃষিজ জিডিপিতে মৎস্যখাতের অবদান এক-চতুর্থাংশ

রাজশাহী প্রতিনিধি   |   ০৬:১৭, ডিসেম্বর ০৮, ২০১৯

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মোঃ আশরাফ আলী খান খসরু বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এ সরকারের উন্নয়ন গতিধারা তুলনাহীন। আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের সামনে যে ম্যান্ডেট দেয় তা পুরোপুরি বাস্তবায়ন করে থাকে। বিএনপির মত ভাওতাবাজির উন্নয়ন করে না।

রোববার রাজশাহী শহরের নানকিং দরবার হলে মৎস্য অধিদপ্তরাধীন ‘রাজশাহী বিভাগে মৎস্যসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের’ উদ্বোধনী ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।


প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের মোট জিডিপি’র ৩.৫০ শতাংশ এবং কৃষিজ জিডিপি’র এক-চতুর্থাংশের বেশি (২৫.৭১ শতাংশ) মৎস্যখাতের অবদান। ২০১৭-১৮ সালে মাছের উৎপাদন ৪২.৭৭ লাখ মেট্রিকটনে উন্নীত হয়েছে; যা ২০০৮-০৯ সালের মোট উৎপাদন ২৭.০১ লক্ষ মেট্রিকটনের চেয়ে ৫৮.৩৫ শতাংশ বেশি।

উল্লেখ্য, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবজনিত কারণে বরেন্দ্র এলাকায় মৎস্যখাতে উৎপাদন ভবিষ্যতে লক্ষণীয়ভাবে হ্রাস পাবে। এসব বিষয় বিবেচনায় রেখে বরেন্দ্র এলাকার জেলে, মৎস্যচাষি তথা মৎস্যসম্পদের কাঙ্ক্ষিত ও টেকসই উন্নয়নের নিমিত্ত বর্তমান সরকার সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে ৪৭ কোটি ৪৭ লাখ টাকা ব্যয়ে মৎস্য অধিদপ্তরের আওতায় রাজশাহী বিভাগে মৎস্যসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পটি গ্রহণ করে।

এ প্রকল্পের মাধ্যমে রাজশাহী বিভাগের ৮টি জেলার ৬৫টি উপজেলায় ১৮৬০টি প্রদর্শনী খামার স্থাপন, ১৬০টি বিল নার্সারি খনন ও স্থাপন, ৫০টি মৎস্য অভয়াশ্রম স্থাপন ও ১৫০টি পুন:সংস্কার, ১ লাখ মৎস্য খামার রেজিস্ট্রেশন এবং জেলেদের বিকল্প আয়বর্ধক কর্মসূচি প্রভৃতি কাজ করা হবে।

অনুষ্ঠানে মৎস্য অধিদপ্তরের মহাপরচিালক কাজী শামস আফরোজের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন রাজশাহী জেলার উপপরিচালক (স্থানীয় সরকার) পারভেজ রায়হান, মৎস্য অধিদপ্তর রাজশাহী বিভাগের উপপরিচালক হাসান ফেরদৌস সরকার এবং রাজশাহী বিভাগে মৎস্যসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক কামরুল হাসান।

আরআর


আরও পড়ুন