শুক্রবার ১০ এপ্রিল ২০২০

২৭ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ২৪,২০২০, ১০:৩৮

ফেব্রুয়ারি ২৪,২০২০, ১০:৩৮

গ্রামীণফোনকে আরও ১০০০ কোটি তিন মাসে পরিশোধের নির্দেশ

টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (বিটিআরসি) কে আগামী তিন মাসের মধ্যে আরো ১ হাজার কোটি টাকা দিতে গ্রামীণফোনের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

সোমবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হাসানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বৃহত্তর পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালত বলেছে, ওই সময়ের মধ্যে গ্রামীণফোন টাকা না দিলে বিটিআরসির নিরীক্ষা আপত্তি দাবির নোটিসের ওপর হাই কোর্টের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা বাতিল হয়ে যাবে।

বিটিআরসি বলে আসছে, গ্রামীণফোনের কাছে নিরীক্ষা আপত্তির ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা পাওনা রয়েছে তাদের। বিষয়টি আদালতে গড়ালে গ্রামীণফোনকে আপাতত দুই হাজার কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

আদালতের নির্দেশে প্রথম কিস্তিতে ১০০০ কোটি টাকার পে-অর্ডার রোববার বিটিআরসির কাছে হস্তান্তর করে গ্রামীণফোন।

রোববার দুপুরে রাজধানীর রমনায় বিটিআরসি কার্যালয়ে এক হাজার কোটি টাকার পে অর্ডার নিয়ে যান গ্রামীণফোনের পরিচালক ও হেড অব রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স হোসেন সাদাত। এ সময় তার সঙ্গে গ্রামীণফোনের কয়েকজন কর্মকর্তাও ছিলেন। বিটিআরসির পক্ষে এই টাকা গ্রহণ করেন সংস্থার চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হক।

এসময় বিটিআরসির চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হক টাকা জমা দেওয়ার জন্য গ্রামীণফোনকে ধন্যবাদ জানান।

গ্রামীণফোন গত শুক্রবারই গণমাধ্যমকে রোববার (গতকাল) বিটিআরসির কাছে এক হাজার কোটি টাকা জমা দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে বলে, ‘গ্রামীণফোন বাংলাদেশের আইনি প্রক্রিয়ার প্রতি, মাননীয় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং এ কম্পানির ওপর বিটিআরসির চাপ থেকে আদালতের সুরক্ষা নিয়ে সম্মুখে এগিয়ে যেতে চায়।’

এর আগে গত বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগ সোমবারের মধ্যে গ্রামীণফোনকে বিটিআরসির তহবিলে এক হাজার কোটি টাকা জমা দিতে নির্দেশ দেন।

আমারসংবাদ/জেডআই