বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

৯ আশ্বিন ১৪২৭

ই-পেপার

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি

জুলাই ২৫,২০২০, ০১:৩৯

জুলাই ২৫,২০২০, ০১:৩৯

ওসি মইনুল ইসলামে বদলে গেছে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার চিত্র

মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার, পুলিশ হবে জনতার এই শ্লোগানকে বাস্তবায়নে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন কেরানীগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী মইনুল ইসলাম পিপিএম। পুলিশকে জনবান্ধব ও জনগনের কাছাকাছি নেওয়ার অঙ্গিকার নিয়ে ইতোমধ্যে কাজ শুরু করে দিয়েছেন তিনি।

মুক্তিযাদ্ধো, কমিউনিটি পুলিশ, জন প্রতিনিধি ও সাধারণ জনগনকে নিয়ে পুলিশি কার্যক্রমের অংশ হিসেবে জঙ্গিবাদ, চাঁদাবাজ, সন্ত্রাস ও মাদক নির্মুলে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন ২০২০ সালের জানুয়ারিতে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় যুক্ত হওয়া এই অভিজ্ঞ পুলিশ কর্মকর্তা। ঘুষমুক্ত জিডি, মামলা এবং সেবা গ্রহীতাদের সেবা পেতে মধ্যস্ততাকারীর উপস্থিতি তথা তকদীর নিরুৎসাহিত করছেন। থানাকে দালাল মুক্ত ঘোষণা করছেন, সাথে সাথে পুলিশকে ভয় নয় বন্ধু হিসাবে দেখতে তিনি থানার প্রতিটি মানুষকে থানায় এসে সেবা নিতে আহবান জানিয়েছেন।

বিট পুলিশিং কার্যক্রম সফল করার নিমিত্তে সকল নাগরিকদের নাগরিক তথ্য ফরম পূরনের মাধ্যমে থানা পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহায়তা এবং মাদক, ভূমিদস্যু, চাঁদাবাজ সংক্রান্ত তথ্য প্রদানে সকলকে উদ্বুদ্ধ করছেন। মডেল থানাধীন রোহিতপুর, তারানগর, শাক্তা, কলাতিয়া হযরতপুর, কালিন্দী ইউনিয়নে একাধিকবার উঠান বৈঠক করে জনগণকে পুলিশি কার্যক্রমের সাথে সম্পৃক্ত করছেন।

ওসি'র দৃঢ় সিদ্ধান্তে বদলে গেছে থানার দৃশ্যপট। সাধারণ জনগণকে ওসির সাথে দেখা করে তাদের সমস্যার কথা বলতে এখন আর নেতা বা মধ্যস্ততাকারী লাগে না। জিডি বা মামলা করতে টাকা লাগে না। অনলাইনেও করা যাচ্ছে অভিযোগ! একাধিক সফল অভিযান পরিচালনা করার ফলে কমেছে চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি, চাদাবাজিও দখলদারি।

অভিযানের বিষয়ে তিনি বলেন, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত দেশ গড়তে পুলিশিং সেবা মানুষের দোড়গাড়োয় পৌছানোর লক্ষ্যে কাজ করছে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা তথা ঢাকা জেলা পুলিশ। পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে দেশের সার্বিক শৃঙ্খলা উন্নতির লক্ষ্যে করোনা কালীন সময়ে মানুষের জীবন রক্ষায় ফন্ট লাইনার যোদ্ধা হিসেবে কাজ করে প্রশংসিত হয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ। করোনা কালিন সময় মডেল থানার প্রায় ৫০ জন সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়েছে, তবুও থেমে ছিলোনা তাদের কোন কার্যক্রম।

সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করা, করোনা আক্রান্তরুগীর হাসপাতালে নেওয়া, তাদের হোম আইসোলেশন নিশ্চিত ও ভ্রাম্যমাণ আদালতে উপজেলা প্রশাসন সহায়তা দেওয়া দেওয়া ছাড়াও সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, চাঁদাবাজ, শিশু ও নারী নির্যাতন, ইভটিজিং মুক্ত কেরানীগঞ্জ গড়ার প্রতিশ্রুতি নিয়ে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন পুলিশ সদস্যরা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করছে বাংলাদেশ পুলিশের সকল সদস্যরা। তাই অত্র এলাকার মাদক নির্মূলে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করা হয়েছে। মাদক কারবারির সাথে সাথে এর পৃষ্ঠপোষকতা কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না বলেও জানান চৌকস এই পুলিশ কর্মকর্তা।

রোহিতপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল আলী জানান, কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি মইনুল ইসলাম যোগদান করার পর থেকে কেরানীগঞ্জের আইনশৃঙ্খলার উন্নতি হয়েছে। তার বন্ধুসুলভ আচরণ সাধারণ মানুষকে পুলিশের সেবা পেতে উৎসাহি করছে। তার মত পুলিশ কর্মকর্তা পেয়ে আমরা আনন্দিত।

আমারসংবাদ/কেএস