বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০

১৩ কার্তিক ১৪২৭

ই-পেপার

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি

সেপ্টেম্বর ২৭,২০২০, ০২:০১

সেপ্টেম্বর ২৮,২০২০, ০১:২৯

নিজ বাসায় গৃহবধূর রহস্যজনক খুন

ঢাকার কেরানীগঞ্জ মডেল থানার জিয়ানগর এলাকায় শনিবার রাতে দুর্বৃত্তদের হাতে ফাতেমা (২৬) নামে এক গৃহবধূ খুন হন। জিয়ানগর এলাকার নিজ বাসা থেকে নিহতের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ।

নিহত ফাতেমা ঢাকার কামরাঙ্গীচর থানার চর আলীনগর এলাকার মোঃ বাবুল এর বড় মেয়ে। নিহতের এক ছেলে মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে ও স্বামী কেরানীগঞ্জের খোলামোড়া বাজারে ডিমের ব্যবসা করেন।

নিহতের হত্যার রহস্য তদন্তে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ ও ঢাকা জেলা ক্রাইম সিন ইউনিট (সিআইডি) কাজ করছেন।

নিহতের স্বজনরা জানায়, ১৫ বছর আগে কেরানীগঞ্জের জিয়ানগর এলাকার মৃত মোঃ সওকত আলীর ছেলে আব্দুল সামাদ এর সাথে ঢাকার কামরাঙ্গীর থানার চর আলীনগর এলাকার মো. বাবুল মিয়ার মেয়ে ফাতেমা সাথে বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকে ফাতেমা কেরানীগঞ্জ মডেল থানার জিয়ানগর এলাকায় স্বামী সন্তান নিয়ে নিজ বাসায় বসবাস করতেন। হঠাৎ গতকাল রাতে ফাতেমার স্বামী বাড়ী ফিরে স্ত্রীর গলাকাটা মরদেহ দেখতে পেয়ে চিৎকার করে উঠলে এলাকাবাসী জড়ো হয়ে ওঠে। বিষটি এলাকায় চাঞ্চলতা সৃষ্টি করেছে।

নিহতের স্বামী আব্দুল সামাদ জানান, আমার স্ত্রীকে গতকাল সকালে বাসায় একা রেখে আমি ব্যবসার কাজে খোলামোড়া বাজারে যাই। বাসায় ফেরার আগে অনেক বার ফোন দিয়েও তার সাথে যোগাযোগ করা যায়নি। এরপর রাতে বাসায় ফিরে দেখি আমার স্ত্রীর গলাকাটা মরদেহ ঘরের মেঝেতে পড়ে আছে। আমি এ নির্মম হত্যার বিচার চাই।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার (ওসি) অফিসার ইনচার্জ কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, হত্যার ঘটনাটি সত্য। এর সুষ্ঠ তদন্ত চলছে। দ্রুত হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের আটক করে আইনের আওতায় আনা হবে।

আমারসংবাদ/এমআর