শিরোনাম

শত্রুতায় শেষ লক্ষাধিক টাকার মাছ

রাকিবুল ইসলাম, গলাচিপা (পটুয়াখালী)  |  ২০:৫৫, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের আব্দুল লতিফ হাওলাদার মাছের ঘেরে পূর্ব শত্রুতার জেরে দুর্বিত্তরা বিষ প্রয়োগ করে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করে।

ঘের মালিক আব্দুল লতিফ হাওলাদার বিচারের দাবীতে বৃহস্পতিবার দুপুর ২ টায় গলাচিপা উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে উপজেলা চেয়ারম্যান মু. শাহীন শাহ্, উপজেলা নির্বাহী অফিসর শাহ মো. রফিকুল ইসলাম, গলাচিপা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আখতার মোর্শেদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. নিজাম উদ্দিন মোল্লা ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ওয়ানা মার্জিয়া নিতুসহ শত শত মানুষের উপস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্থ আব্দুল লতিফ হাওলাদার ও তার ছেলে মাকসুদুল্লাহ্ অভিযোগ জানান।

ঘের মালিক জানান যে, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে আমি ফজরের নামাজ আদায় করার জন্য ওজু করতে গিয়ে দেখতে পায় ঘেরের চাষকৃত মাছগুলো ভেসে উঠেছে।

তার ছেলে মাকসুদুল্লাহ্ এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি এসে দেখতে পায় ঘেরে চার পাশে প্রায় পাঁচ শতাধিক লাউ, কুমড়া, শসাসহ বিভিন্ন সবজি চারাগুলো প্রতিপক্ষ গ্রুপের ৮ থেকে ১০ জন লোক তাদের ঘের ও সবজি বাগান ক্ষতিগ্রস্থ করে।

ঘের মালিকের ছেলে আরোও জানান, এলাকার (১) শাহিন (২) আশ্রাব (৩) সামসু (৪) সেলিম (৫) মিলন (৬) মন্নান ও (৭) ফেরদাউস কে সবজি গাছ কাটতে দেখে।

পরে তিনি তার বাবাসহ এলাকার লোকজনকে বিষয়টি জানায় এবং স্থানীয় লোকজন তাদের মাছসহ উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেন। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে বিচারের দাবীতে আসার পরে উপজেলা চেয়ারম্যান বিষয়টি ইউএনও ও ওসি সহ স্থানীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি খালিদ হোসেন মিলটন এবং অন্যান্য গণমাধ্যমে কর্মীরা পরিষদের সামনে উপস্থিত হন ও ক্ষতিগ্রস্থের কাছ থেকে তথ্য গ্রহন করেন।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ক্ষতিগ্রস্থ আব্দুল লতিফ হাওলাদারকে বলেন, থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়ার কথা। ঘটনাস্থলে ওসি জানান লিখিত অভিযোগ পেলে অপরাধিদের আইনে আওতায় আনা হবে।

এ ব্যাপারে ভিকটিম সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ইউপি সদস্যদের সাথে বিষয়টি নিয়ে যোগযোগ করলে তারা কোন সহযোগিতা করেন নাই বলে সে জানায়।

এ ছাড়াও ঘের মালিক আব্দুল লতিফ হাওলাদার গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, উপরে উল্লেখিত অপরাধীরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের ছত্র-ছায়ায় ঘের মালিক পরিবারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা দিয়ে দীর্ঘদিন যাবত তাদের আর্থিক ক্ষতিসহ হয়রানী করে আসছে বলে তিনি জানান।

ঘেরে বিষ প্রয়োগে লক্ষ লক্ষ টাকার মাছ ও সবজি গাছ কেটে ফেলায় এলাকায় লোকজন নিন্দা জানায় এবং উপযুক্ত বিচারের দাবী জানান।

এ ব্যাপারে গলাচিপা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত