শিরোনাম

সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ মুনাফায় কর আংশিক কমেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১০:০৫, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

সঞ্চয়পত্রের মুনাফার উপর আরোপিত উৎসে করের হার আংশিক কমানো হয়েছে। চলতি অর্থবছরের বাজেটে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ থেকে অর্জিত মুনাফার উপর ১০ শতাংশ উৎসে কর আরোপ করা হয়েছিল।

এখন তা কিছু ক্ষেত্রে কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হয়েছে। বাকি ক্ষেত্রে ১০ শতাংশ কর অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। নতুন কর হার গত ২৮ আগষ্ট থেকে কার্যকর হবে।

নতুন নিয়মে এখন থেকে ৫ বছর মেয়াদী পেশনার সঞ্চয়পত্রে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগের মুনাফার উপর কোন কর দিতে হবে না।

তবে ৫ লাখ টাকার বেশি বিনিয়োগ করা হলে অর্জিত মুনাফার উপর ১০ শতাংশ কর দিতে হবে।

আগে পেনশনার সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগের মুনাফার উপর কোন কর আরোপিত ছিল না।

এবার ৫ লাখ টাকার বেশি বিনিয়োগ হলে সেই মুনাফাকে করের আওতায় আনা হয়েছে।

সরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা কেবলমাত্র পেনশনের টাকায় এ সঞ্চয়পত্র কিনতে পারেন। অন্য কেউ এটি কিনতে পারে না।

প্রবাসীদের জন্য চালু ওয়েজ আর্নার্স ডেভেলপমেন্ট বন্ড ও অনিবাসী বৈদেশিক মুদ্রা হিসাবের বিপরীতে বিনিয়োগের মুনাফার উপর আগের মতো এখনও কোন কর দিতে হবে না।

তবে এক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীকে আয়কর রিটার্ণ দাখিল করতে হবে।

আগে রিটার্ণ দাখিলও বাধ্যতামূলক ছিল না। বৈদেশিক মুদ্রা আয় বাড়াতে এ খাতের বিনিয়োগের মুনাফা করমুক্ত করা হয়েছে।

অন্যান্য সঞ্চয়পত্রের বিপরীতে ৫ লাখ টাকা বিনিয়োগ পর্যন্ত অর্জিত মুনাফার উপর ৫ শতাংশ কর এবং ৫ লাখ টাকার বেশি বিনিয়োগ থেকে অর্জিত মুনাফার উপর ১০ শতাংশ উৎসে কর দিতে হবে।

এর আওতায় রয়েছে ৫ বছর মেয়াদী বাংলাদেশ সঞ্চয়পত্র, তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র এবং পরিবার সঞ্চয়পত্র। বাজেটে এসব সঞ্চয়পত্রের সব ধরনের বিনিয়োগের মুনাফার উপর ১০ শতাংশ কর আরোপ করা হয়েছিল।

স্বল্প ও মধ্যম আয়ের সঞ্চয়কারীদের বাড়তি সুবিধা দিতে ৫ লাখ টাকা বিনিয়োগের মুনাফার উপর থেকে আরোপিত করের হার ১০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে সম্প্রতি জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

ওই প্রজ্ঞাপনটি বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে একটি সার্কুলারের মাধ্যমে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে জাতীয় সঞ্চয় অধিদফতর থেকে এটি সঞ্চয় ব্যুারো ও ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংকে পাঠানো হয়েছে।

এএসকে/এমএআই

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত