শিরোনাম

রফতানি আয় বাড়াতে সরকারের নানামুখী উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ২১:২৭, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

রফতানি আয় বাড়াতে সরকার নানামুখী উদ্যোগ নিচ্ছে। এর অংশ হিসাবে অনলাইনে বিদেশে বিভিন্ন ধরনের সেবা বা সফটওয়্যার রফতানির মূল্য দেশে আনার নীতিমালা শিথিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। একই সঙ্গে বিদেশ থেকে বিভিন্ন সেবা আমদানির বিল পরিশোধের নীতিমালাও শিথিল করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সম্প্রতি আলাদা দুটি সার্কুলার জারি করেছে।

নতুন সার্কুলার অনুযায়ী অনলাইনে বিদেশে বিভিন্ন ধরনের সেবা রফতানির মূল্য বাবদ অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে প্রতি লেনদেনে সর্বোচ্চ ১০ হাজার ডলার দেশে আনা যাবে। এর বেশি আনতে হলে পণ্য এলসি করে বিদেশে রফতানি করতে হবে। আগে এভাবে সর্বোচ্চ ৫ হাজার ডলার আনা যেতো।

জানা যায়, অনলাইনে বিভিন্ন সেবা রফতানি উৎসাহিত করতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বিশেষ করে যেসব ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা সফটওয়্যার বা ডাটা এন্ট্রির কাজ করে অনলাইনে বিদেশে পাঠিয়ে থাকেন তারা এই প্রক্রিয়ায় রফতানির মূল্য দেশে আনতে পারবেন।

এ উদ্যোগের ফলে বিশেষ করে যারা ফ্রিল্যান্সিং হিসাবে বিদেশে কাজ করেন তাদের বৈদেশিক মুদ্রা দেশে আনা সহজ হবে।

একইভাবে বিদেশ থেকে বিভিন্ন সেবা আমদানির জন্য আগে অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে প্রতি লেনদেনে সর্বোচ্চ ৩০০ ডলার পাঠানো যেত। এখন পাঠানো যাবে সর্বোচ্চ ৫০০ ডলার।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এসব সিদ্ধান্তের ফলে ছোট অনলাইন উদ্যোক্তারা উপকৃত হবেন। তারা রফতানির প্রয়োজনীয় ছোট খাট সেবা অনলাইনে আমদানিও করতে পারবেন। আগে এ ধরনের সুযোগ ছিল না।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় অনলাইন ব্যবসার প্রসার ঘটাতে অনলাইন লেনদেনকে উৎসাহিত করার উদ্যোগ নিয়েছেন। এর অংশ হিসাবে নতুন করে ই-ওয়ালেট করা হচ্ছে। যার মাধ্যমে অনলাইনে সব ধরনের লেনদেন করা যাবে।

এসব লেনদেনের জন্য থাকবে একটি অ্যাপ। এর মাধ্যমেই সব ধরনের দেশি বিদেশি লেনদেন করা যাবে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্যই এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এএসকে/আরআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত