শিরোনাম

রাজস্ব আহরণ ও পর্যালোচনা সভায় অর্থমন্ত্রীর অসন্তুষ্টি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার   |  ০২:৪৯, অক্টোবর ১৩, ২০১৯

কর ছাড়ের সংস্কৃতি প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা ধার্য করে বাজেট পাস হয়ে গেলে তা আইনে পরিণত হয়। সবার মতামত নিয়েই বাজেট হয়। এ প্রসঙ্গে তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, তা সত্বেও কেন আবার কর ছাড়?

বিশ্বের কোন দেশে এটা আছে? অর্থমন্ত্রী কর ছাড়ের সিস্টেম থেকে বেরিয়ে আসার তাগিদ দিয়ে এনবিআর কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আর কোন এসআরও সংশোধন নয়। প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি ছাড়া কোনো অবস্থাতেই কর ছাড় দেয়া হবে না। তাই নতুন করে কোনো খাতে এসআরও সংশোধন প্রয়োজন নেই। যদি এ কারণে কোনো খাতে একান্ত সমস্যা থেকেই থাকে, সেটি পরবর্তি বাজেটে দেখা হবে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী।

রোববার (১৩ অক্টোবর) রাজস্ব আহরণ ও পর্যালোচনা সংক্রান্ত জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের এক সভায় যোগ দেন অর্থমন্ত্রী। এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি কাঙ্ক্ষিত মাত্রার রাজস্ব আদায় না হওয়ায় রাজস্ব কর্মকর্তাদের উপর অসন্তোষও প্রকাশ করেন। পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের তিনি সরকারেরর নরম-গরমের ব্যবস্থা গ্রহণের কথাও মনে করিয়ে দেন।

আহ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হয়নি। নির্ধারিত লক্ষ্যের চেয়ে ওই সময় ৫৫ হাজার কোটি টাকা কম আদায় হয়েছে। চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের আগস্টে এসেও রাজস্বের প্রবৃদ্ধি কম দেখা যাচ্ছে। এটা কোনো ‘জোক’ নয়।

তিনি বলেন, আমি কোনো স্তরের (আয়কর, ভ্যাট ও শুল্ক) রাজস্ব আদায়ে ঋণাত্মক পারসেন্টেজ শুনতে চাই না। লক্ষ্যমাত্রার প্রবৃদ্ধি দেখতে চাই। আর তা টাকার অংকে কত আদায় হয়েছে সেটি স্পষ্ট করতে হবে। মনে রাখতে হবে লক্ষ্যমাত্রার রাজস্ব আয় অর্জিত না হলে সরকার পিছিয়ে যাবে। বাজেটের ধারাবাহিকতাও আর থাকবে না।

এএসকে/আরআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত