ঢাবি শিক্ষার্থী ও কোটা আন্দোলনকারীদের ধর্ষণবিরোধী মানববন্ধন

ঢাবি প্রতিনিধি  |  ১৫:৩৯, জুলাই ১০, ২০১৯

দেশব্যাপী ধর্ষণ ও ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে একাধিক শিক্ষার্থী রাজু ভাস্কর্যে একটি মানববন্ধন করে। বুধবার(১০জুলাই) বেলা ১১.০০ টা থেকে তারা সেখানে এক ঘন্টা অবস্থান করেন।

সেখানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল সংসদ ও ডাকসুর বেশ কিছু নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় ও বিভিন্ন হল কমিটির নেতৃবৃন্দও মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।

মানববন্ধনের ডাকসুর(ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ) স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাদ বিন কাদের চৌধুরী শিশুধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড দেয়ার দাবি জানিয়ে বলেন, "বিচার বিভাগীয় দীর্ঘসূত্রতা কাটিয়ে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। একটি পরিবারের মানসিক অবস্থা কতটা করুণ হয় সেটা তার পরিবারের শিশু ধর্ষণ হলে বুঝা যায়"

মানবন্ধনে অংশ নেয়া আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ‌‌‌‍‘আমাদের দেশে যে হারে ধর্ষণ এবং সাম্প্রতিক সময়ে শিশু ধর্ষণ বেড়েছে সে অনুযায়ী বিচার ও শাস্তি পাচ্ছে না বলেই এটি দিন দিন বেড়ে চলেছে’

মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করা একাধিক শিক্ষার্থীর বক্তব্যে ধর্ষণের বিচারের যে ধীর গতি তা কমিয়ে সকল ধর্ষকদের মৃতুদণ্ড কার্যকর করার দাবি উঠে এসেছে।

এছাড়াও দেশব্যাপী ধর্ষণ, খুন, গুমের ঘটনায় প্রতিবাদে সরব হয়ে উঠেছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতৃবৃন্দ। ধর্ষণ, খুন, দুর্নীতি রোধে তারা একটি প্রতিবাদী গণপদযাত্রা করে। বুধবার(১০জুলাই) বেলা ১১.৩০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষার্থী অপরাজেয় বাংলার পাদদেশ থেকে একটি প্রতিবাদী র‍্যালিটি নিয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গা প্রদক্ষিণ করে।

গণপদযাত্রায় অংশ নেন সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ন-আহবায়ক রাশেদ, হাসান ও ফারুকসহ শতাধিক শিক্ষার্থী।

আগের দিন রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডাকসু(ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ) ভিপি নুরুপ হক নুর সকল শিক্ষার্থীর প্রতি এই প্রতিবাদী র‍্যালিতে অংশগ্রহণের আহবান জানান।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি বাংলাদেশে ধর্ষণ ও শিশু ধর্ষণ ভয়ানক রূপ ধারণ করেছে। বিভিন্ন হিসাব বলছে গত ১৮ মাসে প্রায় ৮০০ জন শিশু ধর্ষিত হয়েছে যার মধ্যে শুধু বিগত ৬মাসেই ধর্ষণ করা হয়েছে ৩৯৯ জন শিশুকে এবং ধর্ষণ করে হত্যা করা হয়েছে প্রায় ১৬জনকে।

এমআর