শিরোনাম

আবরার হত্যার বিচার দাবিতে গবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

মো. অনিক আহমেদ, গবি  |  ১৭:১৩, অক্টোবর ০৯, ২০১৯

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে ছাত্রলীগ কর্তৃক নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (০৯ অক্টোবর) দুপুর একটায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে উক্ত কর্মসূচি পালিত হয়।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে ক্যাম্পাসের বাদামতলা থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় 'আমার ভাই কবরে, খুনি কেন বাহিরে', 'শিক্ষা-সংঘাত, একসাথে চলে না, ফাঁসি ফাঁসি ফাঁসি চাই, ছাত্রলীগের ফাঁসি চাই' ইত্যাদি স্লোগানে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে ক্যাম্পাস। বিক্ষোভ মিছিলটি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান প্রদক্ষিণ শেষে ক্যাম্পাসের মূল ফটকে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের ক্যাম্পাসগুলোতে সন্ত্রাসী কার্যক্রম এখন নিয়মিত ঘটনা হয়ে দাড়িয়েছে। আবরার হত্যার খুনিদের হাতে জাতির ভবিষ্যত মেধাবী শিক্ষার্থীদের জীবনের কোনো মূল্য নাই। অবিলম্বে তার হত্যায় দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। অন্যথায় ছাত্রসমাজ একজোট হয়ে ক্যাম্পাসের শান্তি বিনষ্টকারীদের শক্ত হাতে দমন করবে।

উক্ত কর্মসূচির প্রতি সমর্থন জানিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগ দেন বিভিন্ন অনুষদীয় ডীন, বিভাগীয় প্রধানসহ শিক্ষকবৃন্দ। এ সময় কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মনসুর মুসা, রাজনীতি ও প্রশাসন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলাম, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধান মনিরুল হাসান মাসুম প্রমুখ উপস্থিতি ছিলেন।

তারা এই নির্মম হত্যাকাণ্ডের পেছনে ছাত্র নামধারী সন্ত্রাসীদের নৈতিক শিক্ষার অভাবকে দায়ী করেন। এর আগে নিহত আবরারের রুহের মাগফিরাত কামনায় সকলে এক মিনিটে দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করেন।

প্রসঙ্গত, রোববার (৬ অক্টোবর) দিবাগত মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবরারকে শেরেবাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান।

সোমবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় ইতোমধ্যে ছাত্রলীগের তেরজনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আটকদের মধ্যে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সহ-সভাপতিও রয়েছেন।

উল্লেখ্য, ৪ দিনের পূজার ছুটি শেষে বুধবার (৯ অক্টোরব) থেকে শুরু হয়েছে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ও একাডেমিক কার্যক্রম।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত