শুক্রবার ১০ এপ্রিল ২০২০

২৭ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

বিনোদন প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ২২,২০২০, ১১:২৮

ফেব্রুয়ারি ২২,২০২০, ১১:২৮

সাইমন বিবাহিত, সন্তানও আছে

শিরোনাম পড়ে অবাক হলেও এটাই সত্যিই। পোড়ামন খ্যাত চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক বিবাহিত। ভক্তরাও এতদিন জানতেন সাইমন অবিবাহিত। চার বছর পর জানা গেলো সাইমন বিবাহিত। তার ৪ বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তানও রয়েছে।

দীর্ঘ ৯ বছর প্রেম করার পর দুই পরিবারের সম্মতিতে ২০১৪ সালে ঢাকার মেয়ে দীপাকে বিয়ে করেন সাইমন। সাইমন-দীপা দম্পতির রয়েছে দুই ছেলে সন্তান। বড় ছেলের নাম সাদিক মো. সাইয়্যান। তার বয়স চার বছর চার মাস। সে এখন প্রথম শ্রেণিতে পড়াশোনা করেছেন। আর ছোট ছেলের নাম সাদিক মো. সাইয়্যার। তার বয়স পাঁচ মাস।

তবে এতদিন বিষয়টি কেন গোপন রেখেছিলেন তা জানা সম্ভব হয়নি। কিন্তু সন্তানের সাফল্যের কথা কি আর লুকানো যায়? যখন তিনি এটা সামনে আনতে গেলেন তখন চলে আসলো বিয়ের বিষয়টিও। আর এভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজেই নিজের বিয়ে ও সন্তানের খবর ভক্তদের জানিয়ে দিলেন চিত্রনায়ক সাইমন। ফেসবুকে তিনি লিখেছেন-

‘বাবা-মা।
পৃথিবীর সবচেয়ে অমূল্য রতন। যা কিনা অনেকের মতো আমিও ভাষায় প্রকাশ করতে পারি না!
আমার আব্বুকে কখনও বলিনি, তুমি আমাদের কত বড় শক্তি, ছায়া, ভালোবাসা, আরও কত কি যে আমরা উপলব্ধি করি, তুমি আছো বলে।
কোনোদিন আপনাদেরও বলিনি আমিও বাবা হয়েছি। আমার বড় ধন, আমার জীবন, আমার সন্তান, সাদিক মো: সাইয়্যান (৪ বছর ৪ মাস)।

আমার বড় ছেলে। ও তার বিদ্যালয় জীবনের প্রথম পরীক্ষায়, প্রথম হয়েছে। একজন বাবা হিসেবে এটাই আমার সেরা মুহূর্ত।

আমার টুকটুকের জন্য দোয়া করবেন, যেন মানুষের মতো মানুষ হয়। বাংলাদেশকে যেন অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়।

শেষে এই নায়ক লিখেছেন, বি:দ্র: আমাকে ক্ষমা করবেন, ওকে এতদিন পর আপনাদের সামনে আনার জন্য।

বাবা তোমারই মতো আমিও বাবা হয়েছি...
এখন বুঝি বাবা কত কষ্ট তোমায় দিয়েছি........

এ বিষয়ে সাইমন সাদিক বলেন, আমার বিয়ের বিষয়টা অনেকেই জানতো না, শুধু কাছের কয়েকজন ছাড়া। ভালোবেসে বিয়ে করেছি। দীপার সঙ্গে আমার প্রেম ছিল নয় বছরের। দুজন দুজনকে খুব ভালোবাসি আর সেই ভালোবাসাকে পূর্ণতা দিতেই আমরা বিয়ে করি। কিন্তু এই বিষয়টা এতদিন প্রকাশ্যে আনিনি। আজ ছেলের আনন্দে বিষয়টি সবার সামনে নিয়ে এসেছি।

ছেলেকে নিয়ে তিনি বলেন, বাবা হওয়ার অনুভূতি আসলে ভাষায় প্রকাশ করার মত না। আমার কাছে আমার ছেলেই সবকিছু। আমি ওর জন্য সবার কাছে দোয়া চাই। আজকে আমার বড় ছেলে তার জীবনের প্রথম পরীক্ষায় প্রথম হয়েছে। এটা আমার জন্য অতি আনন্দের। আর তাই আজকে এই খুশিতে আত্নহারা হয়ে ছেলের ছবি প্রকাশ করি।

আমারসংবাদ/এমএআই