পানি সরবরাহ বন্ধে বিপাকে চিংড়ি চাষি

প্রিন্ট সংস্করণ॥পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি  |  ০২:৫৫, মার্চ ১৬, ২০১৯

পাইকগাছার আলোচিত চিংড়ি ঘেরের বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষরা পানি সরবরাহের ক্যানেল বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে হাজার হাজার বিঘার চিংড়ি ঘের। পানি সরবরাহ নিয়ে বিপাকে পড়েছেন অর্ধশতাধিক চিংড়ি চাষি। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী জমির মালিকরা সংকট নিরসনে প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন। উপজেলার লস্কর-গড়ইখালী ইউপি সীমান্তে নূরপুর আমিরপুর মৌজাস্থ ঘের মালিক ইমরান হোসেন সোহাগ গং ও জাহাঙ্গীর সরদার গংদের বিরোধের জেরে এ অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইব্রাহিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিরোধ নিষ্পত্তির চেষ্টা করছেন বলে জানিয়েছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দুই ইউনিয়ন সীমান্তে নুরপুর আমিরপুর মৌজায় প্রয়াত শাহজাহান সানার ছেলে ইমরান হোসেন সোহাগ-সঞ্জীব গংরা ওয়াপদার ভেতর ও বাইরে প্রায় ২৫০ বিঘা জমিতে চিংড়ি ঘের করে আসছিল। ইমরান-সঞ্জীব গংদের লিজ ডিড দেয়নি এবং হারীর টাকা পাননি এমন অভিযোগে জমির মালিক জাহাঙ্গীর-বকুল গংরা চলতি মৌসুমে উক্ত ঘেরের মধ্য হতে সম্পত্তি পৃথক করে আলাদা ঘের করেন। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে চরম বিরোধ দেখা দেয়। এলাকার জমির মালিক অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মনোরঞ্জন মণ্ডল, হারুন সানা, খায়রুল মিস্ত্রি অভিযোগ করেছেন, সঞ্জীব গংরা পরিকল্পিতভাবে পানি সরবরাহের ক্যানেল বন্ধ করে এলাকার হাজার হাজার বিঘার চিংড়ি ঘের বন্ধ করে অর্থনীতি ধ্বংস করার চেষ্টা করছেন। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে এলাকার মানুষ থানার ওসি বরাবর অভিযোগ করেছেন। থানা পুলিশসহ সর্বশেষ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইব্রাহিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গতকাল শুক্রবার সকালে নিজ কার্যালয়ে উভয়পক্ষের উপস্থিতিতে সালিসি বৈঠক করে দীর্ঘদিনের বিরোধ নিষ্পত্তি করার চেষ্টা করেন।