শিরোনাম

ভিডিও করে ধর্ষণ, ছাত্রলীগ নেতাসহ ৪জনের বিরুদ্ধে মামলা

উজিরপুর (বরিশাল) প্রতিনিধি  |  ০২:৩৩, মে ২৪, ২০১৯

বরিশালের উজিরপুরের বামরাইল ইউনিয়নের দক্ষিণ মোড়াকাঠি গ্রামে গোসলের সময় নগ্ন ভিডিও ধারণ করে পরবর্তীতে তা ফাঁসের ভয় দেখিয়ে গৃহবধূকে একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক মিলন রাঢ়িকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর আগে এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে ধর্ষিতা ওই গৃহবধূ উজিরপুর মডেল থানায় চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করলে পুলিশ মিলনকে গ্রেপ্তার করে।

ধর্ষক মিলন ওই এলাকার ফারুক রাঢ়ির ছেলে ও দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামি। এ ছাড়া মামলার অন্যান্য আসামিরা হলেন- বামরাইল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সজীব শরীফ, বামরাইল এলাকার কালাম শরীফ ও ফরহাদ শরীফ।

মামলা ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা গেছে, ওই গৃহবধূ দেড় বছর যাবত তার দিনমজুর স্বামীর সাথে দক্ষিণ মোড়াকাঠী গ্রামের হারুন হাওলাদারের ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। গত ৬ মাস পূর্বে একই বাড়ির ভাড়াটিয়া মিলন রাঢ়ি গোপনে মোবাইল ফোনে ওই গৃহবধূর গোসলের নগ্ন ছবি ও ভিডিও ধারণ করে। এরপর তা ইন্টারনেটে ফাঁস করার হুমকি দিয়ে একাধিকবার ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে।

সর্বশেষ গত কয়েকদিন পূর্বে ওই গুহবধূকে পুনরায় ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে বখাটে মিলন তার স্বামীকে ওই নগ্ন ভিডিও দেখায়। এনিয়ে ওই গৃহবধূর পরিবারে কলহ শুরু হয়। পরবর্তীতে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে গত ১৭ মে রাতে ওই ধর্ষিতা গৃহবধূর ভাড়া বাসায় গিয়ে বামরাইল ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আতিকুর রহমান রাঢ়ী, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সজীব শরীফ, স্থানীয় কালাম শরীফ, ফরহাদ শরীফসহ একাধিক প্রভাবশালী ধর্ষিতা ও তার স্বামীকে ১০ হাজার টাকা দেয়। সেই সাথে বিষয়টি নিয়ে থানা পুলিশসহ কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দেয়।

গৃহবধূর স্বামী দিনমজুর শহিদুল ইসলাম জানান, স্থানীয় প্রভাবশালীদের কাছে ওই ১০ হাজার টাকা ফেরত দেয়ার পর তাদেরকে ভাড়াটিয়া বাসা থেকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। এরপরই গত মঙ্গলবার রাতে তার স্ত্রী বাদি হয়ে হয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলাটি করেন।

অভিযোগ অস্বীকার করে বামরাইল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সজীব শরীফসহ অন্যান্যরা জানান, আমরা এ ধরনের ঘটনার কোনো সালিসি করিনি কিংবা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টাও করিনি। আমাদের বিরুদ্ধে এগুলো সব ষড়যন্ত্র।

উজিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিশির কুমার পাল মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, প্রধান অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত