শিরোনাম

ঈদে কড়া নজরদারিতে থাকবে ফেসবুক!

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ২০:৫৫, মে ২৬, ২০১৯

ঈদে কড়া নজরদারিতে ফেসবুক!
আসছে ঈদুল ফিতরে কঠোর নিরাপত্তায় থাকবে সারাদেশ। এরই মধ্যে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন তৎপরতা চোখে পড়ছে। ঈদকে আনন্দঘন ও নিরাপদ করার জন্য প্রতিবারের মতো এবারও মসজিদ, ঈদগাহ এবং রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকা, স্থাপনা ও দর্শনীয় স্থানগুলোতে থাকবে পুলিশি নজরদারি ও চেকপোস্ট।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও জঙ্গিবাদী অপতৎপরতার বিষয়টি মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনির। তাই এবার এ দুই ইস্যুতেও কড়া নজরদারি থাকছে। এ বিষয়ে ইতোমধ্যে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশসহ (ডিএমপি) পুলিশের সব ইউনিট নিজেদের মতো সভা করে কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করেছে।

নাড়ির টানে মানুষ এখন গ্রামমুখী হচ্ছে। শহর হয়ে যাচ্ছে ধীরে ধীরে ফাঁকা। তাই ঈদের সময় আগে ও পরে প্রতিটি থানা এলাকায় নিরাপত্তা আরও জোরদার করা হবে। পাড়া-মহল্লার সড়ক পর্যরন্ত পুলিশি টহল বাড়ানো হবে জানিয়েছেন পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইডি) মো. সোহেল রানা।

সড়কের পাশাপাশি রাজধানীর থানাগুলোতেও নিরাপত্তা বেড়েছে। নিরাপত্তার কারখানায় নিরাপত্তা না থাকলে সে নিরাপত্তার গুণগত মান নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে ভেবেই রাজধানীর প্রতিটি থানার ডিউটি অফিসারের রুমে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। অনে কক জায়গায়নস্টেবলের মাধ্যমে গেইটে নাম পরিচয় এন্ট্রি করে ভেতরে প্রবেশের অনুমতি মিলছে আগন্তুকদের।

অপরদিকে ঈদকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার পুলিশ সদর দপ্তরে এক নিরাপত্তার বিষয়ক সেমিনারে আলোচনা রাখেন পুলিশের আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। তিনি এ ঈদে জঙ্গি ও উগ্রপনা সংস্থাদের তৎপরতা রোধে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন, চাঁদাবাজি, চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ অন্যান্য অপরাধ প্রতিরোধে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভ্রান্তিমূলক পোস্ট, মন্তব্য বা ছবি আপলোড করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অপচেষ্টাকারীদের ওপর গোয়েন্দা নজরদারি বাড়িয়ে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিতে হবে, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি বিশেষ নির্দেশ দিয়েছেন আইজিপি।

এসএস

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত