শিরোনাম

সংসদের বাজেট অধিবেশন শুরু আজ, পেশ ১৩ জুন

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১১:০৮, জুন ১১, ২০১৯

একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় ও ২০১৯ সালের বাজেট অধিবেশন আজ মঙ্গলবার (১১জুন) বিকেল ৫টায় শুরু হবে। রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ সংবিধানের ৭২ অনুচ্ছেদের (১) দফায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে গত ১৩ মে এ অধিবেশন আহবান করেছেন।

এটা মূলত বর্তমান সংসদ ও এই সরকারের প্রথম বাজেট অধিবেশন। এর আগে, গত ৩০শে এপ্রিল সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন শেষ হয়। ওই অধিবেশনে ৩টি বিল পাস হয় এবং একটি বিল উত্থাপন করা হয়।

আগামী ১৩ জুন বৃহস্পতিবার সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। অর্থমন্ত্রী হিসেবে এটা হবে তার প্রথম বাজেট। ইতোমধ্যে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বাজেট পেশের এ তারিখ ঘোষণা করেছেন। ফলে বাজেট অধিবেশন হিসেবে একাদশ সংসদের তৃতীয় অধিবেশন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, ৩০ জুন বাজেট পাস হবে। এর আগে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর দীর্ঘ আলোচনা করবেন সংসদ সদস্যরা। আগামী ১ জুলাই থেকে নতুন অর্থবছর কার্যকর হবে। বাজেট অধিবেশন কতদিন চলবে তা নির্ধারিত হবে কার্য-উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে।

আজ অধিবেশন শুরুর আগে বিকাল চারটায় সংসদ ভবনে কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠক বসবে। কমিটির সভাপতি ও সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠেয় বৈঠকে কমিটির সদস্য ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ অন্য সদস্যরা অংশ নেবেন। এ ছাড়া বৃহস্পতিবার বাজেট পেশের আগে ওইদিন সংসদ ভবনে অনুষ্ঠেয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে তা অনুমোদন দেয়া হবে।

বাজেট অধিবেশন উপলক্ষে সংসদ সচিবালয় নানা প্রস্তুতি নিয়েছে। বাজেট পেশের দিন রাষ্ট্রপতি, প্রধান বিচারপতিসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা সংসদ ভবনে উপস্থিত থাকবেন। এই বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এছাড়া বাজেট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে সংসদ সদস্যদের সুবিধার্থে সংসদ ভবনে হেল্প ডেস্ক খোলা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সব মিলে আগামীর বাজেট ৫ লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকার হবে। যা এ যাবৎকালের রেকর্ড। কারণ চলতি অর্থবছরে বাজেট হচ্ছে ৪ লাখ ৬৪ হাজার কোটি টাকার। বিশাল বাজেট মোকাবিলা করতে রাজস্ব আয় ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৭৭ হাজার ৮১০ কোটি টাকা। এর মধ্যে এনবিআরের রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ ৩ লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকা।

এনবিআর বহির্ভূত রাজস্ব ধরা হয়েছে ১৪ হাজার কোটি টাকা। কর ছাড়া রাজস্ব ধরা হয়েছে ৩৮ হাজার কোটি টাকা। বাজেটে ঘাটতি ধরা হয়েছে ১ লাখ ৫৩ হাজার কোটি টাকা। যা জিডিপির ৫ শতাংশ। চলতি অর্থবছরে বাজেটে ঘাটতি ধরা হয়েছে ১ লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকা।

যা ৫ শতাংশের কম। জিডিপির প্রবৃদ্ধি ধরা হয়েছে ৮ দশমিক ২ শতাংশ। যেখানে চলতি অর্থবছরে ৭ দশমিক ৮ শতাংশ ধরা হলেও অনেক বেশি ৮ দশমিক ১৩ শতাংশ অর্জন হবে বলে সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন। বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি-এডিপি নির্ধারণ করা হয়েছে ২ লাখ ২ হাজার কোটি টাকা।

এমএআই

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত