বরিস জনসন যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  |  ১৭:৩৫, জুলাই ২৩, ২০১৯

বরিস জনসন যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। সাবেক ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন ও বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্টের মধ্যে অনুষ্ঠিত ভোটে বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন।

সোমবার (২৩জুলাই) দুই নেতার মধ্য থেকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে ভোট দেন ব্রিটেনের ক্ষমতাসীন দল কনজারভেটিভ পার্টির ১ লাখ ৬০ হাজার নিবন্ধিত নেতা।

নির্বাচিত হয়ে বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এবং তার মূল প্রতিদ্বন্দ্বি জেরেমি হান্টের প্রতি সম্মান জানিয়েছেন বরিস জনসন।

তিনি বলেন, জেরেমির দারুণ কিছু পরিকল্পনা আছে। সেগুলো নিয়েও কাজ করতে চান বলে জানিয়েছেন তিনি। এছাড়া বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মেকেও তাদের দেশের প্রতি অবদানের জন্য সম্মান জানান।

ইতোমধ্যে বরিস জনসনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন থেরেসা মে।

এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘কনজারভেটিভদের নেতা নির্বাচিত হওয়ায় বরিস জনসনকে অনেক অভিনন্দন। এখন আমাদের সবাইকে মিলে ব্রেক্সিট ইস্যুতে এমনভাবে কাজ করতে হবে যেন তা সর্বোচ্চ ফলপ্রসূ হয়। আর জেরেমি করবিনকে এসবের বাইরে রাখতে হবে। আপনার সরকারের প্রতি পূর্ণ সমর্থন আছে আমার।’

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে কনজারভেটিভ পার্টির নেতাদের মধ্যে লন্ডনের সাবেক মেয়র বরিস জনসনের জনপ্রিয়তা বেশি বলে ব্রিটিশ গণমাধ্যমে প্রকাশ পায়।

নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পরই তাঁর ওপর ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের দায়িত্ব বর্তাবে। আর বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলে তিনি 'যে কোনো' মূল্যে তা বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছেন।

নতুন প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণার পর বুধবার (২৪জুলাই) ব্রিটেনের রানির কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে। এরপরই দায়িত্ব গ্রহণ করবেন নবনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।