শিরোনাম

বৃষ্টির প্রবণতা বৃদ্ধি পাবে

প্রিন্ট সংস্করণ॥বেলাল হোসেন  |  ০০:৩৮, জুন ১৬, ২০১৯

জ্যৈষ্ঠ মাসের শেষ কয়েকদিনে মনে করিয়ে দিয়েছিলো কাঠফাটা গরম কী। তবে আষাঢ়ের প্রথম দিনের বৃষ্টিতে স্বস্তি পেলো নগরবাসী। বৃষ্টির ছোঁয়ায় সবাই ছিলো প্রশান্তিতে। ঋতুবৈচিত্র্যের দিক থেকে ষড়ঋতুর দেশ আমাদের সুজলা-সুফলা বাংলাদেশ।

সময়ের সরল প্রবাহে প্রকৃতি ক্রমশ পাল্টে যেতে থাকে স্বাভাবিক নিয়মেই। এই পাল্টাপাল্টিই হচ্ছে ঋতুর পরিবর্তন। আষাঢ় ও শ্রাবণ এই দুই নিয়ে বর্ষাকাল। রিমঝিম বৃষ্টি, এক রাশ সজীবতা আর কদমফুলের সুভাস নিয়ে হাজির হয় বর্ষাকাল।

পৃথিবীর আর কোনো দেশে ঋতু হিসেবে বর্ষার স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য বা নাম নেই। এই ঋতু যেন শুধু আমাদেরই ঋতু। কদম ফুলের স্নিগ্ধ ঘ্রাণ যুগে যুগে নগরবাসী কিংবা গ্রামবাসীকে মুগ্ধ করে এসেছে। তাই বর্ষা কবিদের ঋতু, নজরুল-রবীন্দ্রনাথের ঋতু। বৃষ্টির সঙ্গে আমাদের প্রেম সেই আদিকাল থেকেই।

গতকাল শনিবার ভোর ৬টা থেকে রাজধানীর আকাশে মেঘ জমতে থাকে। এরপর আকাশে কালো মেঘের সৃষ্টি, এমন সময় নামল বৃষ্টি। ধীরে ধীরে পুরো রাজধানীজুড়ে বৃষ্টি শুরু হয়। তবে এই বৃষ্টি কিছু সময়ের মধ্যে থেমে গেলেও আকাশ এখন কালো। সঙ্গে রয়েছে মেঘের গর্জনও। তবে কিছু জায়গায় থেমে থেমে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন স্থানে গত শুক্রবারও বৃষ্টি হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক জানান, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ থেকে উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু বরিশাল, চট্টগ্রাম, ঢাকা,ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগ অতিক্রম করে বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত অগ্রসর হয়েছে। গতকাল সকাল থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হচ্ছে। তবে বেশির ভাগ স্থানে হালকা বৃষ্টি হচ্ছে।

আকাশের এখনো মেঘ আছে। তিনি আরও জানান, মৌসুমি বায়ুর কারণে আগামী তিনদিন বৃষ্টির প্রবণতা আরও বৃদ্ধি পাবে। তাপমাত্রাও কিছুটা কমবে। এ ছাড়া বর্ষা মৌসুমে কয়েকদিন পরপর টানা বৃষ্টি থাকবে।

আগামী তিন দিনে দেশে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি ও তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু পুরো দেশে বিস্তার লাভ করতে পারে। গতকাল শনিবার সকালে আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ থেকে উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত অবস্থান করছে। এদিকে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু বরিশাল, চট্টগ্রাম, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগ অতিক্রম করে বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত অগ্রসর হয়েছে।

গতকাল শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এসব কথা বলা হয়। পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর বিভাগের অনেক জায়গায়; ঢাকা, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

সেইসাথে রংপুর, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে। এ ছাড়া রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপ প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং কিছু কিছু এলাকায় তা প্রশমিত হতে পারে।

অন্যদিকে ঢাকা, রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে। এ ছাড়া দেশের অন্যত্র তা প্রায় অপরিবর্তিত থাকবে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত