শিরোনাম

জিয়া স্বাধীনতার ঘোষক প্রমাণ দিন, রাজনীতি ছাড়বো : ডেপুটি স্পিকার

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১৩:৩৮, জুন ১৯, ২০১৯

জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলে রাব্বি মিয়া বলেছেন, একটি রাজনৈতিক দল জিয়াউর রহমানকে স্বাধীনতার ঘোষক বলে দাবি করছে।

এটা নিয়ে জাতীয় পার্লামেন্টেও আমাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

যদি বিএনপির কোনো নেতা বা নেত্রী প্রমাণ করতে পারে স্বাধীনতার পর জিয়াউর রহমান একবার নিজেকে স্বাধীনতার ঘোষক বলে দাবি করেছ তা হলে রাজনীতি ছেড়ে চলে যাবো। আমরা মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে রাজনীতি করতে চাই না।

বুধবার (১৯জুন) রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় যাদুঘরে ঐতিহাসিক আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার শুনানী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুসহ অনেকেই দেশ স্বাধীনের আগে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলাসহ বিভিন্ন মামলার আসামি হয়েছে। কই সেদিন তো জিয়াউর রহমান কোনো মামলার আসামি হয়নি। অথচ তিনি আজ স্বাধীনতার ঘোষক হয়ে গেলেন।

তিনি বলেন, আজ স্বাধীনতার ঘোষণা নিয়ে অনেকেই অনেক কথা বলেন। দেশের প্রতিটি মানুষের স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস জানা দরকার। বঙ্গবন্ধু বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বক্তব্য দিয়েছে। সেই বক্তব্য থেকেই বাংলাদেশের স্বাধীনতার ধারাবাহিকতা শুরু হয়েছে। এগুলো ইতিহাসের নিরব সাক্ষী। তাই আপনারা (বিএনপি) সঠিক ইতিহাস জানতে ইতিহাস পড়ুন। শিক্ষা নিন।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার স্বপক্ষে সঠিক ইতিহাস জানার জন্য রাজনীতি থাকা উচিৎ। আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করেছি। কিন্তু সেই রাজনীতি করি না যে রাজনীতি মিথ্যার আশ্রয় নেয়। আপনারা (বিএনপি )মিথ্যার রাজনীতি বাদ দিন।

১৯৬৯ সালের গণঅভ্যুত্থানের মূল কারণ উল্লেখ করেন এই ডেপুটি স্পীকার বলেন, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় সেদিন যদি পাকিস্তানের শাসন গোষ্ঠী জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে প্রধান আসামি না করতেন তা হলে গণঅভ্যুত্থান হতো না। স্বাধীনতার এত জোরদার হতো না। এটাই বাস্তব।

আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার অনেকেই মারা গিয়েছেন। কিন্তু এখনও আরো যে ক'জন বেঁচে আছেন। বেঁচে থাকা এই ক'জনকে জাতীয় সম্মাননা দেয়া যেতে পারে।

আগরতলা মামলা অভিযুক্ত পরিষদ, ৭১ ফাউন্ডেশন ও ঐতিহাসিক আগরতলা মামলার মূল্যায়ন পরিষদের আয়োজনে সভায় সাবেক ডেপুটি স্পীকার বীর মুক্তিযোদ্ধা কর্ণেল শওকত আলীর সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন- ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, কর্ণেল সামছুল আলম, জাতীয় বীর নূর মোহাম্মদ, মাজেদা শওকত, আজিজুর রহমান ও খালেদ শওকও আলী প্রমুখ।

এমএআই

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত