শিরোনাম

উলিপুরে স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ

মো. নূরবক্ত মিঞা, উলিপুর (কুড়িগ্রাম)  |  ২২:৫৮, জুন ১৬, ২০১৯

কুড়িগ্রামের উপলিপুরের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া একসময়ের প্রমত্তা বুড়িতিস্তা নদী নাব্যতা হারিয়ে ভরাট হয়ে যায়। ভরাট হওয়া নদীর উপর দিয়ে দু’ পাশের গ্রামগুলোর মানুষ যাতায়াত করত।

সম্প্রতি বুড়িতিস্তা নদী পুনঃখনন হলে দীর্ঘদিনের সেতুবন্ধন থেকে বিচ্ছন্ন হয়ে পরের ছয় গ্রামের ১০ হাজার মানুষ। বুড়িতিস্তা পাড়ের মানুষজনের এ সম্পর্ক অল্প সময়ের জন্য বিচ্ছিন্ন হলেও তা বেশি দিন রাখতে দেননি দুই পারের মানুষজন।

তারা য়াতায়াতের সুবিধার জন্য চরপাড়া, খেয়ারপাড়, ছোট কানিপাড়া, ছড়ারপাড়, পিয়ালারপার, বড় কনিপাড়া গ্রামের সুসম্পর্কের বাঁধনে স্বেচ্ছাশ্রমে তৈরি করেন বাঁশের সাঁকো।

গতকাল সকালে বুড়িতিস্তা নদীর উপরে স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মিত পৌরসভার চরপাড়া গ্রামে গিয়ে কথা হয় আকবর আলী রফিকুল ইসলাম, মজিবর রহমান সেকেন্দার আলী, আব্দুল বাতেন ও ফরিদুল ইসলাম, কলেজ পড়ুয়া মঞ্জু মিয়া, রাশেদুল ইসলাম, মাঈদুল ইসলামসহ অনেকের সাথে।

তারা জানান, সম্প্রতি বুড়িতিস্তা নদী খনন করা হলে তাদের যাতায়াতের পথ বন্ধ হয়ে যায়। পানিতে ভিজে অনেক কষ্ট করে যাতায়াত করতে হতো তাদের।

তাই তারা ছয় গ্রামের মানুষের যাতায়াতের দুর্দশা ঘোচাতে এসব গ্রামের উদ্যোগী যুবক মিলে সাঁকো তৈরির পরিকল্পনা করে। এতে যোগ দেন গ্রামের সব বয়সের মানুষ। সংগ্রহ করা হয় বাঁশসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। তাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সেতুটি তৈরি করতে পেরে তারা গর্বিত ।

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত