শিরোনাম

৯ মাস ওমান থাকার পর ক্যান্সার ধরা পরে জনির

আখাউড়া প্রতিনিধি  |  ১৩:১৬, জুন ২০, ২০১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া উপজেলার ধরখার ইউনিয়নের ঘোলখার গ্রামের কাজী শুক্কু মিয়ার ২য় ছেলে জনি। গত ৯মাস আগে ওমান যায় জনি। অনেক কষ্ট করে সে। কিন্তু নয় মাস ওমান থাকার পর ক্যান্সার ধরা পরে জনির।

জনির বাবা জানান, বিয়ে করার ঠিক ৯ মাস পর আমি আমার ছেলের উজ্জ্বল একটি জীবনের আশায় তাকে ওমান পাঠাই। অনেক কষ্ট করে জনি। কিন্তু নয় মাস ওমান থাকার পর ক্যান্সার ধরা পরে আমার ছেলে জনির।

ক্যান্সার ধরা পরার পর গত কয়েক মাসে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা খরচ করে সর্বশান্ত আমার পরিবার। তার পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন আরো ১৫ লক্ষ টাকার।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে কাঁদতে কাঁদতে জনির মা রিনা বেগম জানান, কিন্তু আমার পরিবারের পক্ষে এই টাকার যোগান দেওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। তাই নিজ বাড়িতে ধীরে ধীরে মৃত্যুর সাথে লড়ছে আমার ছেলে জনি (২৫)।

ব্ল্যাড ক্যন্সারে আক্রান্ত কাজী জনির বাবা কাজী শুক্কু মিয়া বলেন, আইন-বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে সহযোগিতা কামনা করছি, সেই সাথে সমাজের বিত্তবানদের প্রতিও সাহায্যের আবেদন করছি তারা সাহায্য করলে হয়ত আমার ছেলে চিকিৎসার মাধ্যমে মৃত্যু থেকে বাঁচতে পারবে।

ব্ল্যাড ক্যান্সারে আক্রান্ত কাজী জনির বড় ভাই কাজী রনি বলেন, ভাইকে বাঁচানোর জন্য অনেক টাকা খরচ করছি আর পারছি না চিকিৎসা খরচ বহন করতে। ভাইকে বাঁচাতে প্রয়োজন আরো ১৫ লক্ষ টাকার কিন্ত আমাদের পক্ষে এ টাকা বের করা কোন ভাবেই সম্ভব না।

আমিও একজন প্রবাসী, আমি সকল প্রবাসীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই, সবাই যদি অল্প অল্প করে আমার ভাইয়ের চিকিৎসার জন্য এগিয়ে আসে ইনশাল্লাহ আমার ভাই বেঁচে যাবে। ব্ল্যাড ক্যন্সারে আক্রান্ত কাজী জনিকে সাহায্যের জন্য সরাসরি যোগাযোগ ফোন (০১৭৪৮৯৯৫৫২৮ ছোট ভাই কাজী সানি)।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত