মঙ্গলবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

৬ ফাল্গুন ১৪২৬

ই-পেপার

ফেব্রুয়ারি ১৩,২০২০, ০৯:০৫

ফেব্রুয়ারি ১৩,২০২০, ০৩:০৫

জাতিসংঘ কর্মীদের বিরুদ্ধে ৬০,০০০ ধর্ষণের অভিযোগ!

এক দশকে জাতিসংঘ কর্মীদের বিরুদ্ধে ৬০ হাজার ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। সংস্থাটির কর্মীরা উদ্ধার, সহায়তা বা ত্রাণ কার্যক্রমের আড়ালে শিশু ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির এসব ঘটনা ঘটিয়েছে। বছরের পর বছর ভালো মানুষের মুখোশ পরে তারা এই জঘন্য অপরাধ ঘটিয়ে চলেছে।

এক গোপন তথ্যদাতার এমন অভিযোগের নথি গত বছর ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও ব্রিটিশ সরকারের অনুদানদাতা সংস্থা ডিপার্টমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্টের (ডিএফআইডি) সচিবের কাছে জমা দিয়েছেন জাতিসংঘের তৎকালীন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা অ্যান্ড্রু ম্যাকলেয়ড।

২০১৮ সালেও এমনই চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট পেশ করেছিলেন তিনি। অধ্যাপক, সমাজকর্মী অ্যান্ড্রু ম্যাকলয়েডের দাবি, গোটা বিশ্বেই ছড়িয়ে রয়েছে জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার এই কর্মীরা।

পিছিয়ে পড়া দেশগুলোতে শিক্ষা, স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে কাজ করে ওই কর্মীরা। শিশু ধর্ষণ, শিশু ও নারী পাচারের মতো ঘৃণ্য অপরাধের বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলাই যাদের কাজ, তাদের বেশিরভাগই শিশু ধর্ষণে জড়িত।

তিনি আরও বলেছেন, জাতিসংঘের ছাতার তলায় থাকা বিভিন্ন সংস্থায় অন্তত ৩,৩০০ শিশু ধর্ষক লুকিয়ে রয়েছে। ভালো মানুষের মুখোশ পরে তারা এই জঘন্য অপরাধ ঘটিয়ে চলেছে বছরের পর বছর। শিশুরাই মূলত তাদের যৌন লালসার শিকার।

এই ভয়ঙ্কর অভিযোগকে অস্বীকার করতে পারেননি জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস।

অ্যান্ড্রু ম্যাকলয়েডের অভিযোগ মেনে নিয়ে তিনি বলেছেন, গত এক দশকে অন্তত ৬০ হাজার ধর্ষণের ঘটনা ঘটিয়েছে জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার কর্মীরা। এনজিও ও উদ্ধারকারী দলের সদস্যেরাই তাদের মধ্যে বেশি।

সূত্র : দ্য ওয়াল

আমারসংবাদ/এমএআই