শিরোনাম

পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার হারাম: খোমেনি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  |  ১৬:১৪, অক্টোবর ১০, ২০১৯

ইরানের পরমাণু অস্ত্র তৈরির ব্যাপারে দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খোমেনি বলেছেন, পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি, ব্যবহার এমনকি এর বিস্তৃতি ইসলামের দৃষ্টিকোণ থেকে সম্পূর্ণ হারাম। বুধবার (৯ অক্টোবর) ইরানের তরুণ বিজ্ঞানীদের সাথে এক সভায় বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। খবর তেহরান টাইমস।

তিনি বলেন, ইরান পরমাণু অস্ত্র তৈরি ও উন্নয়নে সক্ষমতা অর্জন করেছে আরো আগেই। কিন্তু ইসলামের অনুশাসনে চলতে গেলে বলতে হয়, এই ধরণের অস্ত্র ব্যবহারকে ইসলাম অনুমোদন দেয় না।

ওই সভায় খোমেনি আরও বলেন, ‘আমরা চাইলেই পরমাণু অস্ত্র সংক্রান্ত যে কোনো পদক্ষেপ নিতে পারি। কিন্তু ইসলামে এ সংক্রান্ত পদক্ষেপ হারাম বলে উল্লেখ করা হয়েছে। তাই ইসলাম পরিপন্থি কোনো উদ্যোগের পেছনে অর্থ ব্যয়কে আমি ভালো চোখে দেখি না’।

এদিকে, আয়তুল্লাহ খোমেনি পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার যে হারাম এই ফতোয়া কয়েক দশক ধরে দিয়ে আসছেন। ১৯৯০ সালে প্রথম তিনি এই বক্তব্যের অবতারণা করেন। তবে ইরানের বিরুদ্ধে অনেক দিন ধরেই পরমাণু কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

তবে, ইরানের পক্ষ থেকে সেই অভিযোগ অস্বীকার করে বলা হয়েছে, তারা শুধুমাত্র শান্তিপূর্ণ ব্যবহারের জন্যই পারমাণবিক প্রযুক্তি কাজে লাগান।

এর আগে, ২০১৫ সালে ইরান বিশ্বের নেতৃস্থানীয় কয়েকটি দেশের সাথে একটি চুক্তির মাধ্যমে পরমাণু প্রযুক্তি ব্যবহার সীমাবদ্ধ করে আনার পক্ষে মতামত দেয়। তার ফলশ্রুতিতে, ইরানের ওপর আরোপিত বিভিন্ন অর্থনৈতিক অবরোধ শিথিল করার মাধ্যমে দেশটির অর্থনীতি সচল করা হয়।

কিন্তু, গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ওই চুক্তি বাতিল ঘোষণা করেন। তারপর থেকেই ইরানকে কেন্দ্র করে বিশ্বে কূটনৈতিক এবং নিরাপত্তা সঙ্কট তৈরি হতে থাকে, যা এখনও চলমান রয়েছে।

এসএ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত