শিরোনাম

সেই র‌্যাব সদস্যদের বিএসএফের ভয়াবহ নির্যাতন!

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ০০:২৬, অক্টোবর ১১, ২০১৯

কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া সীমান্ত অতিক্রম করে ধরা পড়া তিন র‌্যাব সদস্য ও তাদের দুই সোর্সকে প্রায় ১০ ঘন্টার পর ফেরত দিয়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সকাল আনুমানিক সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার আশাবাড়ি সীমান্তের ২০৫৯নং পিলারের ১০ নম্বর গেট এলাকা থেকে তাদের ধরে নিয়ে যায় বিএসএফ। এ ঘটনার পর সীমান্তের ওই এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

পরে দুদেশের পতাকা বৈঠক শেষে বিকাল ৫টার দিকে বিএসএফ তাদের বিজিবির কাছে ফিরিয়ে দেয়।

এই পাঁচজন হলেন-র‌্যাবের কনস্টেবল আবদুল মতিন, কনস্টেবল রিগেন বড়ুয়া, সৈনিক ওয়াহেদুল ইসলাম এবং র‌্যাবের দুই নারী সোর্স লিজা ও তার খালা।

৬০ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সংকুচাইল ক্যাম্পের সুবেদার নুরুল ইসলাম র‌্যাব ১১’র তিন সদস্য ও সোর্সদের গ্রহণ করেন।

র‌্যাব সদস্যদের কাছে থাকা একটি পি’স্তল, ১টি ম্যাগজিন, আট রা’উন্ড গু’লি, দুটি হাতকড়া ফেরত দিয়েছে বিএসএফ।

স্থানীয়রা সাংবাদিকদের বলেন, তিন র‌্যাব সদস্যকে নিয়ে মাদক উদ্ধার করতে সীমান্তের ২০৫৯ নম্বর পিলার সংলগ্ন একটি বাড়িতে যান তাদের দুই সোর্স। এসময় ভুলবশত তারা সীমান্ত অতিক্রম করেন।

র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার মুহিতুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, র‌্যাব-১১ এর সিপিসি-২ এর একটি দল বৃহস্পতিবার সকালে কুমিল্লা থেকে আশাবাড়ি এলাকায় মাদক উদ্ধার অভিযানে যায়। এসময় মাদক চোরাকারবারিদের ধাওয়ায় র‌্যাবের কয়েকজন সদস্য ভারতীয় সীমান্তের ১০ নম্বও গেট দিয়ে ভারতের অভ্যন্তরে ঢুকে পড়ে। পরে সীমান্তের উপারে ভারতীয় নাগরিকরা তাদের আটকের পর মারধর করে বিএসএফের কাছে হস্তান্তর করে।

সীমান্তের বিজিবির সংকুচাইল বিওপির কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার নুরুল ইসলাম জানান, সীমান্তের ২০৫৯নং পিলারের কাছে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের রহিমপুর-আশাবাড়ি সীমান্ত এলাকা দিয়ে র‌্যাব সদস্যরা ভুলবশত ভারতে প্রবেশ করলে ভারতীয়রা তাদের আটক করে বিএসএফের কাছে হস্তান্তর করে।

একটি বিশ্বস্ত সূত্র আমার সংবাদকে জানায়, বিএসএফ সদস্যরা র‌্যাব সদস্য ও সোর্সদের তাদের ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে ভয়াবহ নির্যাতন করে।

এমএআই

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত