মঙ্গলবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

১৩ ফাল্গুন ১৪২৬

ই-পেপার

মানিকছড়ি (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি

জানুয়ারি ১৬,২০২০, ০৫:২৮

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:০৯

শীতার্তদের পাশে সেনাবাহিনী

হাঁড় কাঁপানো শীতে পাহাড়ের দুস্থ, অসহায়, হত-দরিদ্র জনগোষ্টির দুর্বিষহ রাত্রীযাপনের খবরে শীর্তাত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে সেনাবাহিনী। বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) সকালে মানিকছড়ি ইংলিশ স্কুল মাঠে অর্ধশত দুস্থ ও হত-দরিদ্র শীর্তাতের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন সিন্দুকছড়ি জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল কাজী কাওসার জাহান পিএসসি,জি। পাহাড়ে মাস খানেক ধরে শীতের তীব্রতা চলছে। গত এক সপ্তাহ ধরে শৈত্য প্রবাহে এখানকার হত-দরিদ্ররা চরম বেকাদায় পড়েছে। বিশেষ করে চা শ্রমিক, ডে লেবার ও কৃষকরা শীতের তীব্রতা সামাল দিতে গিয়ে বেসামাল হয়ে পড়েছে। উপজেলার চারটি ইউনিয়নের তৃণমূলে বসবাসরত হত-দরিদ্র জনগোষ্টি অভাব অনটনে দিনযাপন করায় গরম কাপড়-ছোপড় তাদের ঘরে নেই বললেই চলে। শীতকালে স্বাভাভিকভাবে তারা ঘরে আগুন জ্বালিয়ে গরমের পরশ নেওয়ার চেষ্টা করে। এবার শীতের শুরুতেই প্রতিনিয়ত তাপমাত্রা কমতে থাকে। অন্যান্য স্থানের ন্যায় খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার জনপদে শীতের প্রভাব পড়েছে। হত-দরিদ্ররা বাজারের গরম কাপড় সংগ্রহে ভীড় জমাচ্ছে। উপজেলার ৭০-৭৫ হাজার জনগণের সিংহভাগই গরীব। এছাড়া এ জনপদে বৃত্তবান ব্যক্তি তেমন না থাকায় সকল হত-দরিদ্র পরিবার প্রতি বছর সরকারি কম্বল বিতরণ সম্ভব হয়ে উঠে না। এবার সরকারিভাবে প্রতিটি ইউনিয়নে চারশত ৬০ পিস হারে কম্বল জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে ইতোমধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে সদর ইউনিয়নের অর্ধশত হত-দরিদ্র ও দুস্থ নারী পুরুষের হাতে শীতবস্ত্র তুলে দিলেন সিন্দুকছড়ি জোনের নবাগত জোন কামান্ডার লে. কর্ণেল কাজী কাওসার জাহান, পিএসসি,জি। এ সময় অতিথি হিসেব উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. জয়নাল আবেদীন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তামান্না মাহমুদ, ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান ফারুক, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও প্রেসক্লাব সভাপতি মো. মাঈন উদ্দীন, জেলা সনাতন সমাজ কল্যাণ নেতা সজল বরণ সেন, কার্বারী এসোসিয়েশন সভাপতি উদ্রাচাই কার্বারী, ইউপি সদস্য মো. কামাল হোসেন, মো. শফিকুল ইসলাম, নাছিমা বেগম, ইউপি সচিব মো. মোশাররফ হোসেন মজনু প্রমূখ। শীতবস্ত্র হত-দরিদ্র ও দুস্থ শীর্তাতরা সেনাবাহিনীর এমন মানবিকতা দেখে স্বস্তিবোধ করেছেন। আমারসংবাদ/কেএস