বুধবার ০৩ জুন ২০২০

২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি

মে ২৩,২০২০, ০১:৫২

মে ২৩,২০২০, ০১:৫২

অবশেষে কোম্পানীগঞ্জের ১৭ মামলার আসামি গ্রেপ্তার

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বিচ্ছিন্ন অঞ্চল গাংচিলের ত্রাস, হত্যা, ধর্ষণ, ডাকাতিসহ দু’ডজন মামলার আসামি ও মাদক সম্রাট মোজাম্মেল মেম্বারকে কবিরহাট থেকে গ্রেপ্তার করেছে কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রবিউল হক।

উপজেলার চর এলাহী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের কিল্লার বাজারের ব্যবসায়ী মো. রাশেদ (৩৫), কে নির্মমভাবে হাত পায়ের রগ কেটে, পিটিয়ে, কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলার ১নম্বর আসামি ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হোসেন (৪০)।

শুক্রবার (২২ মে) রাত সাড়ে ১০টার দিকে পুলিশ পার্শ্ববর্তী কবিরহাট উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের শাহাজিরহাট বাজারে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃত মোজাম্মেল হোসেন চর এলাহী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য ও একই এলাকার মৃত মো. হোসেন’র ছেলে। তার বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় প্রায় দু’ডজন মামলা রয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত শুক্রবার (৯ মে) কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চর এলাহী ইউনিয়নের কিল্লার বাজারের নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তুলে নিয়ে ব্যবসায়ী মো: রাশেদ (৩৫), কে হাত পায়ের রগ কেটে, পিটিয়ে, কুপিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় হত্যা করা হয়। নিহত রাশেদ চরএলাহী ৮নং ওয়ার্ড গাঙচিল গ্রামের আবুল হাসেম প্রকাশ বাদী হাসেমের ছেলে।

স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, এলাকায় আধিপত্য নিয়ে রাশেদের ভাই দেলোয়ারের সঙ্গে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোজাম্মেল মেম্বারের বিরোধ চলছিল। পরে মোজাম্মেল মেম্বারের নেতৃত্বে স্থানীয় ইকবাল, মেহরাজ ও বেচু মাঝিসহ অন্তত ২০-২৫ জন কিল্লার বাজার থেকে রাশেদকে তুলে নিয়ে হাত পায়ের রগ কেটে, পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় গত শনিবার (১১ মে) নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আমারসংবাদ/এমআর