মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০

২০ শ্রাবণ ১৪২৭

ই-পেপার

মুজাহিদ হোসেন, রাবি

ডিসেম্বর ১৪,২০১৯, ০৮:৫১

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:০৯

‘মানবতাবিরোধীদের কবরের নামফলকে রাজাকার যোগ করার দাবি’

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন ও র‌্যালি করেছে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখা। শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী চত্ত্বরে এ মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে থেকে র‌্যালি শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। শুরুতে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। সেখানে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নেতাকর্মীরা ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। গোলাম রব্বানী রবির সঞ্চালনায় একাত্তরের ঘাতক দালাল কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক উপাধ্যক্ষ কামরুজ্জামান বলেন, ‘১৪ই ডিসেম্বরের হত্যার রাজনীতি অনেক আগেই শুরু হয়েছিল। যে রাজনীতির কারণে আমরা জোহা স্যারকে হারিয়েছি। সেই রাজনীতি নয় মাসব্যাপী হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছে। ১৯৭৫ এর ১৫ই আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করেছে। এছাড়া বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করেছে। আমরা সেই হত্যার রাজনীতিকে ধিক্কার জানাই। আজ আমরা এখান থেকেই মানবতাবিরোধীদের কবরের নামফলক এর শহীদ লিখাটি রাষ্ট্রকে ভেঙ্গে দেয়ার দাবি জানাই।’ একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি রবিউল সরকার রুবেল বলেন, ‘যে মানবতাবিরোধীরা শহীদ বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করেছে তাদের কবরের নামফলকে রাজাকার লেখার জোর দাবি জানাই।’ গোলাম রব্বানী রবির সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবির, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মর্তুজা নুর, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি রাজশাহী মহানগর শাখার সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলামসহ প্রমুখ। এমআর