রবিবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

১১ ফাল্গুন ১৪২৬

ই-পেপার

মাহমুদুল হাসান কবীর, ইবি

জানুয়ারি ২৪,২০২০, ১২:০০

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:০৯

ইবি ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনায় তদন্ত কমিটি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনায় জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ। বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) রাতে ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়। নজরুল ইসলাম ও শেখ স্বাধীন শাহেদকে সদস্য করে দুই সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ তদন্ত কমিটিকে আগামী ১০ কার্যদিবসে মধ্যে সুপারিশসহ তদন্ত প্রতিবেদন কেন্দ্রীয় দপ্তর সেলে জমা দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গত ২১ জানুয়ারি শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহকারী প্রক্টরসহ আহত হয়েছিল ২০ জন। বন্ধুবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব এ ফুল দিয়ে মুজিব বর্ষের অনুষ্ঠান শুরু করার জন্য ক্যাম্পাসে আসে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ ও সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব। তাদের গ্রহণ করার জন্য প্রধান ফটকে অবস্থান নেয় সভাপতি গ্রুপের কয়েকজন কর্মী। এসময় বিদ্রোহী দলের নেতা কর্মীরা অতর্কিত হামলা চালিয়ে ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী আমিনের মাথা ফাটিয়ে দেয়। এর প্রতিবাদে মিছিল দিলে ছাত্রলীগের বিদ্রোহী ও পদবঞ্চিত দলের নেতা ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত, তৌকির মাহফুজ মাসুদ, মিজানুর রহমান লালন ও শিশির ইসলাম বাবুর কর্মীরা হামলা চালালে সাধারণ সম্পাদক রাকিবসহ সভাপতি গ্রুপের ১০ জন আহত হয়। ১০ জনের মধ্যে চার জনের মাথা ফেটে যায়। এছাড়াও সহকারী প্রক্টর আরিফুল ইসলাম, আনিছুর রহমান, শহীদুল ইসলামসহ বিদ্রোহী দলের কয়েকজন আহত হয়। সংঘর্ষের সময় ছাত্রলীগের বিদ্রোহী দলের নেতারা ৩টি ককটেল বিস্ফোরণ করে। এছাড়া এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় ঘটনার কারণ উদঘাটন করে দোষী ব্যক্তিকে চিহ্নিত করে করণীয় সুপারিশ পেশ করার জন্য ওইদিনই উপাচার্য তদন্ত কমিটি গঠন করেছিলেন। অধ্যাপক ড. সেলিনা নাসরিনকে আহ্বায়ক করে অধ্যাপক ড. তপন কুমার জোদ্দার ও ড. মো. আবু হেনা মোস্তফা কামালকে সদস্য করে এ কমিটি গঠন করা হয়। আমারসংবাদ/কেএস