মঙ্গলবার ০৭ এপ্রিল ২০২০

২৪ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

অনলাইন ডেস্ক

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ০৬:৫৫

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:১৪

মালয়েশিয়ায় আবারো অভিযান, বাংলাদেশিসহ আটক ১৫৫

মালয়েশিয়ার প্রাণ কেন্দ্র কুয়ালালামপুরের দামানছারার পাংছাপুরি এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন দেশের ৩৫২ জনকে আটক করেছে অভিবাসন বিভাগ। আটককৃতদের মধ্যে যাচাই-বাছাই শেষে বৈধ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হলে গ্রেপ্তার করা হয় বাংলাদেশিসহ ১৫৫ জনকে।

শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) ভোররাতে অভিবাসন বিভাগের প্রধান দাতুক খাইরুল দাজামি দাউদের নেতৃত্বে ব্যাপক অভিযান শুরু করে দামানছারার পাংছাপুরির অ্যাপার্টমেন্টে। এসময় অনেকেই পালাতে চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে আটকের শিকার হয়।

এদিকে পাংছাপুরি এলাকার প্রত্যেকটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অভিবাসন বিভাগের অবস্থানের কারণে নিরাপদ স্থানে যেতে পারেনি অবৈধ অভিবাসীরা। অভিযান শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরেই পালাতে চেষ্টা করে গ্রেপ্তার হন বহু অভিবাসীরা।

পাংছাপুরির ঐ ভবনের বাসিন্দা বাংলাদেশি সুলাইমান এই প্রতিবেদককে বলেন, আমরা সবাই ঘুমিয়ে আছি, এমন সময় ছুটাছুটির শব্দের কারণে ঘুম ভেঙ্গে উঠে দেখি পুরো এলাকায় ইমিগ্রেশন, পুলিশ ও রেলা ঘিরে ফেলেছে। কিছু পর আমাদের রুমে এসে দরজা খুলতে বলে আমরা দরজা খুলে দিতেই প্রবেশ করে সবাই কাগজ পাতি দেখাতে বলে। এ সময় বৈধ কাগজপত্র না থাকায় দুই জনকে গ্ৰেপ্তার করে।
অভিযান শেষে ইমিগ্ৰেশন প্রধান দাতুক খায়রুল দাজামি দাউদ সংবাদ সম্মেলনে জানান, দুইশত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নেতৃত্বে তিন ঘণ্টা ব্যাপী অভিযান পরিচালনা করে আটক করা হয় বিভিন্ন দেশের ৩৫২ জনকে। আটককৃতদের মধ্যে যাচাই-বাছাই শেষে ১৫৫ জনকে গ্ৰেপ্তার করা হয়।

ঐ অভিযানে কোন দেশের কত জনকে গ্ৰেপ্তার করা হয়েছে তার বিস্তারিত প্রকাশ করেনি ইমিগ্ৰেশন ডিজি।

তবে তিনি বলেন, গ্রেপ্তার হওয়াদের মধ্যে পুরুষ ৮৩ জন ও ৬৫ জন নারীসহ ৭ জন শিশু। গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে ইমিগ্রেশন আইনের বিভিন্ন ধারা গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ হওয়ার জন্য মালয়েশিয়া সরকার ২০১৭ সালে সুযোগ দেয়। শেষ হয় ২০১৮ সালের ৩০ শে আগস্ট। ঐ বৈধ হওয়ার সুযোগ পেয়ে বহু বাংলাদেশি রেজিস্ট্রেশন করে প্রতারণার শিকার হয়। এর পর অবৈধ অভিবাসীদের জন্য সেদেশের সরকার ব্যাক ফর গুড কর্মসূচির ম্যাধমে দেশ ত্যাগের সুযোগ দেয়। যা শেষ হয়েছে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯।

আমারসংবাদ/কেএস