মঙ্গলবার ৩১ মার্চ ২০২০

১৭ চৈত্র ১৪২৬

ই-পেপার

আমার সংবাদ ডেস্ক

ফেব্রুয়ারি ২৬,২০২০, ০২:০৬

ফেব্রুয়ারি ২৬,২০২০, ০২:০৬

জন্মের পরই ভাইরাল রাগান্বিত নবজাতক!

 

মায়ের পেট থেকে বেরিয়ে কান্নাকাটি তো দূরের কথা, ডাক্তারদের দিকে তাকিয়ে রীতিমতো চোখ পাকাল সে। সেই ছবিই এখন ভাইরাল নেটদুনিয়ায়।

ঘটনাটি ঘটেছে ব্রাজিলের রাজধানী রিও ডি জেনেরিওতে। সেখানকার এক হাসপাতালে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি জন্ম নেয় এক কন্যা। জন্মের পর সে ছিল একেবারেই চুপচাপ।

তাই ডাক্তাররা তাকে সামান্য আঘাত করেন। কোনও সন্তান জন্মানোর পর সে যদি কোনও শব্দ না করে, ডাক্তাররা হালকা চড়চাপড় মারেন তাকে। ওই সদ্যোজাতের ফুসফুস সঠিক ভাবে কাজ করছে কিনা, তা দেখার জন্যই এই আঘাত।

ছোট্ট প্রাণ এই আঘাতে কেঁদে ওঠে। ডাক্তাররাও সদ্যোজাতের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে অবহিত হন। এক্ষেত্রেও তেমনই করেছিলেন ডাক্তাররা। কিন্তু হয়ে গেল হিতে বিপরীত। কান্না তো দূরের কথা, ডাক্তাররা তাকে চড় মারায় রীতিমতো রেগে গেল সদ্যোজাত। চোখ পাকিয়ে ডাক্তারদের দিকে তাকিয়ে রইল খানিক্ষণ। সদ্যোজাতের এমন ব্যবহারে অবাক ডাক্তাররাও। প্রথমে ঘাবড়ে গেলেও পরে হেসে ফেলেন তারা।

সেই শিশুকন্যার মা ডায়ান ডি জিসেস বারবোসা তার প্রসবের ঘটনা চিরস্মরণীয় করে রাখতে একটি ফটোগ্রাফার ভাড়া করেছিলেন। নবজাতকের ছবিগুলো তিনিই তুলছিলেন। ফলে শিশুকন্যার ওই রাগী মুখের ছবিও মুহূর্তে ক্যামেরাবন্দি হয়ে যায়।

তিনিই ছবিটি পরে সোশ্যাল সাইটে সেটি পোস্ট করেন। আর এখন তো সেই ছবি রীতিমতো ভাইরাল।

ওই ফটোগ্রাফারই জানান, নবজাতক যখন এমন রেগে গিয়েছিল, তখনও তার নাড়ি কাটা হয়নি। ডাক্তাররা এতটাই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন যে পলকের জন্য ওই অভিব্যক্তিতেই মজে গিয়েছিলেন তারা। অবশ্য পরক্ষণেই নাড়ি কেটে ফেলা হয়। আর সঙ্গে সঙ্গে কান্নাকাটি জুড়ে দেয় সদ্যোজাত।

আমারসংবাদ/জেআই