মঙ্গলবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

১৩ ফাল্গুন ১৪২৬

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

জানুয়ারি ১৭,২০২০, ০৩:১৮

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:০৯

‘ইভিএম হচ্ছে ভেল্কিবাজী ও ভোট লুটের মেশিন’

ইভিএম হচ্ছে গত ২৯ ডিসেম্বর মধ্য রাতে নির্বাচনের মতো ভোট ডাকাতির আরেকটি কৌশল। এটা হচ্ছে ভেল্কিবাজীর মেশিন, ভোট লুটের মেশিন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) সকালে এক বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত পথসভায় রিজভী এসব কথা বলেন। বিএনপির চেয়ারপারসন কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তি ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিএনপি ও বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে এই মিছিল হয়। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু করে কাকরাইল নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে ফের দলীয় কার্যালয়ের সামনে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়। রিজভী বলেন, সিইসি কথা অনেক ভালো ভালো বলেন বিধি লঙ্ঘন, অমুক করা, তমুক করা- এসব কথা বলবেন। তারপরও আপনি দেখবেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা ধারাবাহিকভাবে নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘন করবে সেই দিকটায় তার চোখ অন্ধ হয়ে যায়, সেই চোখটা তার খোলা থাকে না। তিনি বলেন, ইভিএম দিয়ে ডিজিটাল ভোট ডাকাতির মহড়া হল গত ১৩ জানুয়ারি চট্টগ্রাম-৮ আসন ও হাইমচর উপজেলা নির্বাচনের ভোটে। ওটা ছিল প্রস্তুতি ম্যাচ। সেখানে প্রমাণিত হয়েছে ভোটার ছাড়াই ইভিএমে নৌকা প্রার্থীদের কিভাবে পাস করানো যায়। রিজভী বলেন, আসন্ন ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনও চট্টগ্রামের মতো দখলের নীলনকশার প্রস্তুতি কিনা তা নিয়ে জনমনে সংশয় দেখা দিয়েছে। এখন সরকারের নতুন নাটক ও বায়োস্কোপ দেখার অপেক্ষায় মানুষ। কেননা ঢাকাতেও সন্ত্রাসী কার্য্ক্রম শুরু হয়েছে। প্রচারণার চলার মধ্যে গ্রেপ্তার করবে না বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। এখন গ্রেপ্তার চলছে, অভিযানও চলছে, আক্রমণ চলছে, হামলা চলছে এবং হামলার মাধ্যমে একটা ভয়ভীতির পরিবেশ তারা সৃষ্টি করেছে। ‍আমারসংবাদ/এমএআই