সোমবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০

১১ ফাল্গুন ১৪২৬

ই-পেপার

আবদুর রহিম

জানুয়ারি ২০,২০২০, ০২:১৮

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:০৯

ধানের বদলে গোলাপ নিয়ে প্রচারণায় ফখরুল!

ধানের শীষ প্রতীকের বদলে হাতে গোলাপ ফুল নিয়ে প্রচারণায় নেমেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সোমবার (২০ জানুয়ারি) রাজধানীর মিরপুরে বাইতুল মোশাররফ জামে মসজিদের সামনে ডিএনসিসির দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের গণসংযোগে ফখরুলকে গোলাপ ফুল হাতে দেখা গেছে। এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক ভিডিও বার্তায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান, কারাবন্দি খালেদা জিয়া, নির্বাসিত তারেক তারেক রহমান ও দলের প্রধান প্রতীক ধানের শীষের পক্ষে ভোট না চেয়ে যাকে খুশি তাকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন। আরও পড়ুন: পাশে নেই খালেদা দূরে ফখরুলও ওইসময় বিষয়টি নিয়ে দেশ-বিদেশে সমালোচিত হয়েছিলেন মির্জা ফখরুল। দলের নেতাকর্মীরা তখন দাবি তুলেছিলেন, কেন কারাবন্দি খালেদা জিয়া ও ধানের শীষের পক্ষে জাতীয় নির্বাচনে তিনি ভোট চাননি? এছাড়া জাতীয় নির্বাচনের দিন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা যখন কেন্দ্র দখল করে নেয়, নিশ্চিত পরাজয় জেনে যখন বিএনপির সিংহভাগ প্রার্থীরা ভোট বর্জন করে, ঠিক তার ৩/৪ ঘন্টা পর দুপুর লগ্নে মির্জা ফখরুল দাবি করেন বিএনপি এখনো একাদশ সংসদ নির্বাচনে জিততে পারেন। তিনি জেতার স্বপ্ন দেখেন। তবে আজ তাবিথের পক্ষে প্রচারণাকালে ফখরুল বলেন, গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য এ নির্বাচন একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। জনগণকে এ মুক্তি আন্দোলনে সম্পৃক্ত করতে আমার নির্বাচনে এসেছি। বিএনপি বিশ্বাস করে, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, গণতন্ত্রের মুক্তি, এবং জনদুর্ভোগ থেকে ঢাকাবাসীর মুক্তির জন্য তাবিথ আউয়াল যে কর্মসূচি হাতে নিয়েছে ঢাকাবাসী সে কর্মসূচির সঙ্গে একমত হবেন। নির্বাচনের তারিখ পেছানো নিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ইসি আগে থেকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারেনি। তারা সব সময়ই অযোগ্যতার প্রমাণ দিয়ে এসেছেন। এসময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল বলেন, আমরা যখনই প্রচারণা শুরু করি ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। প্রতিদিন পরিস্থিতি পরিবর্তন হচ্ছে। আমাদেরও জনসম্পৃক্ততা বাড়ছে, আমরা দেখছি জনমত আমাদের পক্ষে রয়েছে, সাধারণ জনগণের পক্ষে রয়েছে। আমরা মনে করি পরিস্থিতি ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এরকম থাকলে, ভোটাররা ভোট দিতে পারলে বিএনপির বিজয় সুনিশ্চিত। আমারসংবাদ/এআর/জেডআই