রবিবার ০৯ আগস্ট ২০২০

২৪ শ্রাবণ ১৪২৭

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

ডিসেম্বর ১৬,২০১৯, ০১:১৮

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:০৯

রাজাকারের তালিকা এত দেরিতে কেন, প্রশ্ন কামালের

রোববার (১৫ ডিসেম্বর) প্রথম পর্যায়ে সারাদেশের ১০ হাজার ৭৮৯ জন রাজাকারের তালিকা প্রকাশ করেছেন সরকার। রাজাকারদের তালিকা দেরি করে প্রকাশ করায় সরকারের সমালোচনা করেছেন গণফোরাম সভাপতি কামাল হোসেন। সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) বিজয় দিবসের সকালে সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর ড. কামাল হোসেন বলেন, রাজাকারদের তালিকা তৈরি করতে ৫০ বছর পরে কেন? এ সরকার তো ১০ বছর ধরে ক্ষমতায় আছে। এতদিন কী হলো? মানে এ ১০ বছরে কেন এটা সম্ভব হল না? কামাল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, যারা এই জঘন্য অপরাধ করেছে, তাদের দোষী হিসেবে চিহ্নিত করে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। স্বাধীনতাকে বাঙালির সবচেয়ে বড় অর্জন হিসেবে বর্ণনা করে গণফোরাম সভাপতি বলেন, এই স্বাধীনতা এসেছিল জনগণের ‘ঐক্যের শক্তিতে’। স্বাধীনতাকে অর্থবহ করতে এখনও সেই ঐক্য প্রয়োজন। উল্লেখ্য, একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের নয় মাসে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী দীর্ঘ নয় মাস তাদের স্থানীয় দোসর জামায়াতে ইসলামী, মুসলিম লীগ, রাজাকার, আল-বদর, আল-শামস ও শান্তি কমিটির সহায়তায় বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে ৩০ লাখ বাঙালিকে হত্যা করে, দুই লাখ মা-বোনের সন্ত্রমহানি ঘটায়। সরকারের হাতে থাকা নথির তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে সরকার একাত্তরের সেই স্বাধীনতাবিরোধীদের মধ্যে ১০ হাজার ৭৮৯ জনের প্রথম তালিকা প্রকাশ করা হয় রোববার (১৫ ডিসেম্বর)। এমএআই