বুধবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

১৪ ফাল্গুন ১৪২৬

ই-পেপার

নিজস্ব প্রতিবেদক

জানুয়ারি ২০,২০২০, ০৮:০২

ফেব্রুয়ারি ০৯,২০২০, ১০:০৯

প্রাথমিকে ষাট শতাংশ মহিলা কোটায় নিয়োগ কেন নয়: হাইকোর্ট

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৮ এর ২৪ ডিসেম্বর প্রকাশিত চূড়ান্ত ফলাফলে ৬০ শতাংশ মহিলা কোটায় পূরণ করে রীটকারী মহিলা প্রার্থীদের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ না দেওয়া কেন অবৈধ হবেনা ও রীটকারী মহিলা প্রার্থীদের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের নির্দেশনা কেন দেয়া হবেনা তা জানতে ৪ সপ্তাহের রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একই সাথে রীটকারীদের জন্য ২৯টি সহকারী শিক্ষকের পদ সংরক্ষণের নির্দেশ দিয়েছেন। সোমবার ভোলা জেলার ২৯ জন প্রার্থীর দায়ের করা এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে বিচারপতি এ এফ এম নাজমুল হাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের গঠিত ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন। রীটে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সহ ৪ জনকে বিবাদী করা হয়েছে। রীটকারীদের পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন সুপ্রীম কোর্টের এডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া এবং তাকে সহযোগিতা করেন এডভোকেট মোঃ মনিরুল ইসলাম রাহুল ও এডভোকেট সোহরাওয়ার্দী সাদ্দাম অপর দিকে রাষ্ট্র পক্ষে ছিলেন এ বি এম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। রীটকারীদের আইনজীবী মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বলেন, সরকারি শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৩ এর ৭ বিধিতে বলা হয়েছে, সরাসরি নিয়োগযোগ্য পদগুলির ৬০ শতাংশ মহিলা প্রার্থীদের দ্বারা পুরণ করতে হবে। কিন্তু চূড়ান্ত ফলাফলে ৬১ জেলায় ১৮ হাজার ১৪৭ জন চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হয় উক্ত ফলাফলে মহিলা প্রার্থীদের তুলনায় পুরুষ প্রার্থীদের বেশি নির্বাচিত করা হয় যাহা উক্ত বিধি লঙ্গন করে পূর্নাঙ্গ ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। তিনি বলেন, একই ভাবে ভোলা জেলায় সর্বমোট ৩৪৪ প্রার্থীকে চূড়ান্ত ফলাফলে নির্বাচিত করা হয়। তার মধ্যে ১২৭ জন মহিলা ও ২১৭ জন পুরুষ প্রার্থীদের নির্বাচিত করা হয়েছে। কিন্তু ৬০ শতাংশ মহিলা প্রার্থী হিসাবে লিখিত পরীক্ষায় উর্ত্তীন ২০৬ জন মহিলা প্রার্থী নির্বাচিত হওয়ার হকদার। মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বলেন, যাহার পরিপ্রেক্ষিতে ভোলা জেলার ২৯ জন প্রার্থী ৬০ শতাংশ মহিলা কোটায় নিয়োগের নির্দেশনা চেয়ে উক্ত রীট পিটিশন দায়ের করেন। রীট কারীগন হলেন, ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলার আকলিমা বেগম, মারজানা ইয়াসমিন, সুমনা দেব নাথ পূজা, নাসরিন আক্তার, রোকেয়া বেগম, রাবেয়া বেগম, আকলিমা বেগম, খাদিজা বেগম লিমা, আছিয়া আক্তার লিজা সহ সর্বমোট ২৯ জন। আমারসংবাদ/ বিএইচ/জেআই