শনিবার ০৪ জুলাই ২০২০

১৯ আষাঢ় ১৪২৭

ই-পেপার

স্পোর্টস ডেস্ক

ফেব্রুয়ারি ২৪,২০২০, ১১:০৫

ফেব্রুয়ারি ২৪,২০২০, ১১:০৭

মুমিনুলের সেঞ্চুরিতে বড় লিডের পথে টাইগাররা

একমাত্র টেস্টের তৃতীয় দিনে মিরপুর হোম অফ ক্রিকেট শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করছে বাংলাদেশ।

অধিনায়ক হিসেবে বিবর্ণ শুরুর পর ক্রমেই নিজেকে ফিরে পাচ্ছেন মুমিনুল হক। ভারত সফর একদমই ভালো কাটেনি।

পাকিস্তানে থিতু হতে পেরেছিলেন কিন্তু দুটি সম্ভাবনাময় ইনিংসকে দিতে পারেননি পূর্ণতা। দেশের মাটিতে নেতৃত্বর অভিষেকে পেলেন তিন অঙ্কের দেখা।

ডোনাল্ড টিরিপানোকে দারুণ এক কাভার ড্রাইভে বাউন্ডারিতে সেঞ্চুরিতে পৌঁছান মুমিনুল। টেস্টে বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের এটি নবম সেঞ্চুরি।

স্পর্শ করলেন বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি নয় সেঞ্চুরি করা তামিম ইকবালকে।

২০৮ মিনিটে ১৫৬ বলে তিন অঙ্ক ছোঁয়ার পথে মুমিনুলের ব্যাট থেকে এসেছে ১২টি চার।

এই রিপোর্ট লেখা অবধি বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৩০০ রান। টাইগারদের লিড ৩৫ রানের।

এর আগে রোডেশিয়ানদের ২৬৫ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে টেস্ট খেলতে নেমেছেন সে কথা যেন বেমালুম ভুলে গিয়েছেন দুই বাংলাদেশি ওপেনার তামিম ইকবাল এবং সাইফ হাসান।

ব্যাট করতে থাকেন পুরো ক্রিকেটের রঙিন ফরম্যাটের মতোই। ফলে যা হবার তাই হলো।

দলীয় ১৮ রানে নিজের উইকেটটি বিলিয়ে দিয়ে সাজঘরে ফিরে আসেন সাইফ হাসান। পাকিস্তানের সাথে ব্যর্থতার পর তারই ধারবাহিকতা বজার রেখে এই জিম্বাবুয়ে টেস্টেও ফিরলেন মাত্র ৮ রান করে।

এরপর উইকেটে আসেন নাজমুল শান্ত। টেস্ট মেজাজ হারিয়ে তামিম ইকবালের সঙ্গে সমান তালে চালাতে থাকেন ব্যাট। সেই সাথে দুই জনে মিলে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন বাংলাদেশের ইনিংসকে।

দল যখনই ভরসা দেখছিল এই জুটির ওপর ঠিক তখনই সব আশাকে হতাশায় পরিণত করে সাজঘরে ফিরে যান তামিম (৪১)।

ত্রিপানোর বলে চাকাভার গ্লাভসবন্দি হয়ে অর্ধশতক থেকে ৯ রান দূরে থাকতেই থামে এই ওপেনারের ইনিংস।

কিন্তু উইকেট আগলে ধরে বসে থাকেন নাজমুল হোসেন শান্ত। মুমিনুল হককে সঙ্গে নিয়ে সচল রাখেন রানের চাকা। আর পথিমধ্যে তুলে নেন টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম অর্ধশতক।

তবে অর্ধশতক তুলে নেওয়ার পর মারমুখী ভঙ্গিতে খেলতে থাকেন শান্ত। যেখানে অর্ধশতক তুলে নিতে খেলেছিলেন ১০৮ বল সেখানে পরের ৩১ বলে নামের পাশে যুক্ত করেছেন ২১ রান। আর এর মাশুল দিতে হয়েছে ৭১ রানে নিজের উইকেট বিলিয়ে দিয়ে।

তামিম ফেরার পর মুমিনুলের সঙ্গে ৭৬ রানের জুটি গড়েন শান্ত। তুলে নেন ক্যারিয়ারের প্রথম অর্ধশতকও কিন্তু এরপর চার্লটন শুমার বলে চাকাবাহর হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন দলীয় ১৭২ রানে।

বাংলাদেশ একাদশ- তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), নাঈম হাসান, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহী, এবাদত হোসেন।

জিম্বাবুয়ে একাদশ- প্রিন্স মাসভাউরে, কেভিন কাসুজা, ক্রেইগ আরভিন (অধিনায়ক), ব্র্যান্ডন টেলর, টিমিসেন মারুমা, সিকান্দারা রাজা, রেগিস চাকাভা (উইকেটরক্ষক), চার্লটন শুমা, ডোনাল্ড তিরিপানো, এইন্সলে এনডিলোভু, ভিক্টর নায়াউচি।

আমারসংবাদ/এমএআই