শুক্রবার ০৫ জুন ২০২০

২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

স্পোর্টস ডেস্ক

ফেব্রুয়ারি ২৬,২০২০, ০৯:৩৫

ফেব্রুয়ারি ২৬,২০২০, ০৯:৪৫

ক্রিকেটার মিরাজের বাসা থেকে ৫০ লাখ টাকা লুট

ক্রিকেটার মেহেদী হাসান মিরাজের রাজধানীর মিরপুরের বিজয় রাকিন সিটির বাসা থেকে টাকা-পয়সা ও অলংকার চুরি হয়েছে বলে জানা গেছে। এতে সব মিলিয়ে ৪০ থেকে ৫০ লাখ টাকার চুরির শিকার হয়েছেন মিরাজ।

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে চুরির এ ঘটনা জানাজানি হয়।

মিরাজের একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে, বাসায় নগদ টাকা ও অলংকার ছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ কিছু জিনিস চুরি হয়েছে। গত ২০ ফেব্রুয়ারি থেকেই মিরাজ ফ্ল্যাটে ছিলেন না। আজ বুধবার বাসায় ফিরলে তারা চুরির বিষয়টি জানতে পারেন।

ঠিক কবে চুরি হয়েছে, সে বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানাতে পারেনি পুলিশ।

মিরাজের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের ফাইনাল ম্যাচ খেলে মিরাজ ঢাকায় ফিরে স্ত্রীসহ টিম হোটেলে উঠেছিলেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচের স্কোয়াডে তার নাম থাকায় থাকতে হয়েছে টিম হোটেলে।

মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ম্যাচ শেষে টিম হোটেল থেকে বাসায় ফেরেন তিনি। এসময় দেখতে পান বাসায় মূল্যবান প্রায় কোনোকিছুই নেই। এর ফলে নগদ টাকা, সোনা ও ডায়মন্ডের অলংকারসহ প্রায় ৪০ থেকে ৫০ লাখ টাকার সমপরিমাণ চুরির শিকার হয়েছেন মিরাজ।

এ বিষয়ে বিজয় রাকিন সিটির গ্রাহকসেবা কর্মকর্তা সুমাইয়া তাসনিম জানান, চুরির ঘটনা তারা জেনেছেন। তবে ঘটনার বিস্তারিত জানতে পারেননি।

কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিমুজ্জামান বলেন, গত ২০ ফেব্রুয়ারি মিরাজ বাসা থেকে চলে যান। পরে বাসায় ঢুকে তারা আলমারি-ড্রয়ার এলেমেলো দেখতে পান। বুঝতে পারেন, চুরি হয়েছে।

তিনি বলেন, খবর পেয়ে আমরা ওই ভবনটিতে গিয়েছিলাম। মিরাজের ফ্ল্যাটে সিসি ক্যামেরা নেই। তবে ভবনটির বাইরে একটি সিসি ক্যামেরা রয়েছে। সেখান থেকে ফুটেজ নিয়ে আমরা দেখব। তাছাড়া ভবনটিতে রঙমিস্ত্রি ছাড়াও টাইলস ও ফার্নিচারের মিস্ত্রিরা কাজ করছেন। ফলে অনেক মানুষের আনাগোনা রয়েছে। আমরা সবদিক বিবেচনায় রেখেই পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।

এ ঘটনায় কাফরুল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের এই স্পিনিং অলরাউন্ডার। তবে চুরির ঘটনাটি নিয়ে মিরাজের বক্তব্যও এখনো পাওয়া যায়নি।

আমারসংবাদ/জেআই