শিরোনাম

নুসরাত হত্যা মামলায় আসমীদের জামিন নামঞ্জুর

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ২০:৩৬, জুন ২০, ২০১৯

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলায় ১৬ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। আগামী ২৭ জুন থেকে মামলার সাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হবে। এর মধ্য দিয়ে বহুল আলোচিত এই মামলার বিচার শুরু হলো।

আদালত আসামিদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

এর আগে আজ বৃহস্পতিবার মামলার ধার্য তারিখে নুসরাত হত্যা মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত ১৬ আসামিকে নারী ও শিশু নিযাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালতে হাজির করা হয়। বিচারক মো. মামুনুর রশিদের আদালতে অভিযোগ গঠনের শুনানি হয়। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও বাদীর আইনজীবী অভিযোগ গঠনের পক্ষে এবং আসামিপক্ষের আইনজীবীরা অভিযোগ গঠনের বিরোধিতা করে বক্তব্য দেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালতের বিচারক মামুনুর রশিদ ১৬ জন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

আদালতে আসামিদের দেওয়া ১৬৪ ধারার জবানবন্দি প্রত্যাহারের আবেদন করেন তাদের আইনজীবীরা। আসামিরা প্রত্যেকে পৃথকভাবে আদালতের কাঁঠগড়া থেকে বক্তব্য দেন। এরপর তাদের আইনজীবীরা জবানবন্দি প্রত্যাহারের আবেদনের পক্ষে বক্তব্য দেন। আদালত উভয়ের বক্তব্য শুনে তাদের জবানবন্দি প্রত্যাহারের আবেদন নামঞ্জুর করেন।

আদালতে অভিযোগ গঠন শেষে সব আসামির জন্য জামিনের আবেদন করেন তাদের আইনজীবীরা। আদালতের বিচারক প্রত্যেক আসামির জামিন আবেদন ওপর শুনানি করে তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে সব আসামিকে জেলহাজাতে পাঠানোর আদেশ দেন। মামলার পরবর্তী তারিখ ২৭ জুন ধার্য রেখে সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য নির্ধারণ করেন আদালতের বিচারক। আগামী ২৭ জুন মামলার বাদী নুসরাতের ভাই নোমান, বান্ধবী ফুর্তি ও নিশাতের সাক্ষ্য গ্রহণ করার কথা বলা হয়েছে।

গত ৬ এপ্রিল সকালে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত আলিমের আরবি প্রথমপত্র পরীক্ষা দিতে মাদ্রাসায় গেলে দুর্বৃত্তরা তাকে ডেকে কৌশলে মাদ্রাসার ছাদে নিয়ে যায়। পরে তাঁর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ ঘটনায় দগ্ধ নুসরাত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ এপ্রিল রাতে মারা যান। পরের দিন ১১ এপ্রিল বিকেলে সোনাগাজীতে তাঁর জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

এ ঘটনায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলাকে প্রধান আসামিসহ আটজনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান। পিবিআই ও পুলিশ এ মামলায় ২১ জনকে গ্রেপ্তার করে। এদের মধ্যে হত্যায় সরাসরি জড়িত পাঁচজনসহ ১২ জন আসামি আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। গত ২৯ মে দুপুরে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম জাকির হোসেনের আদালতে নুসরাত হত্যা মামলার তদন্ত কমকর্তা পিবিআইয়ের পরিদর্শক শাহ আলম আদালতে ১৬ জন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা দেন।

গত ৩০ মে আদালতে আসামিদের উগ্র ও উচ্ছৃঙ্খল আচরণের কারণে আজ সকালে তাদের কারাগার থেকে কোর্ট হাজতে না এনে দুপুরে সরাসরি আদালতে আনা হয় এবং মামলার কার্যক্রম শেষে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

এসএস

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত