শুক্রবার ০৫ জুন ২০২০

২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মে ০১,২০২০, ১২:২৯

মে ০১,২০২০, ১২:৩৪

মা ছেলেকে পাঠালো দোকানে, ছেলে ফিরেছে বউ নিয়ে!

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে সারাবিশ্বে লকডাউনের মধ্যে মানুষকে যখন জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে যেতে দেয়া হচ্ছে না, তখন অদ্ভূত এক ঘটনা ঘটালেন ভারতের উত্তর প্রদেশের এক তরুণ।

লকডাউনের মধ্যে তাকে ঘরের বাজার সদাইয়ের জন্য মুদি দোকানে পাঠিয়েছিলেন ওই তরুণের মা। তবে ফেরার পথে মুদি বাজারের পরিবর্তে নিজের বিয়ে করা নতুন বউকে নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন তিনি।

ভারতের জনপ্রিয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, ঘটনাটি ভারতের উত্তর প্রদেশের গাজিয়াবাদ এলাকার। ২৬ বছর বয়সী ওই তরুণের নাম গুড্ডু। এ ঘটনায় ওই মা তার ছেলেকে ঘরে ঢুকতে তো দেনই নি, উল্টো থানায় গিয়ে পুলিশের কাছে নালিশ করেছেন তিনি।

পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়ে তিনি বলেন, আমি আজকে আমার ছেলে মুদি দোকানে পাঠিয়েছিলাম কিছু কেনাকাটার জন্য। কিন্তু যখন সে ফিরেছে তখন সাথে করে নতুন বউ নিয়ে এসেছে। এই বিয়ে মেনে নেওয়ার মতো অবস্থায় আমি এখন নেই।

মাস দুয়েক আগে হরিদ্বারের আর্য সমাজ মন্দিরে এই যুগলের বিয়ে হয়। তবে করোনার বিস্তার ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে ভারতজুড়ে লকডাউনের কারণে এখন পর্যন্ত বিয়ের সার্টিফিকেট যোগাড় করতে পারেননি তারা।

এ বিষয়ে গুড্ডু বলেন, ওই সময় স্বাক্ষীর অভাবে আমরা বিয়ের সার্টিফিকেট যোগাড় করতে পারিনি। এটা যোগাড়ের জন্য আমি আবার হরিদ্বার যেতে চেয়েছি, কিন্তু লকডাউনের কারণে আর পারিনি।

স্ত্রীকে নিয়ে এসময় বাড়ি ফেরার সিদ্ধান্তটি লকডাউনের কারণেই নিতে হয়েছে বলে জানান গুড্ডু। কারণ লকডাউনের ফলে তার স্ত্রীকে তাদের দিল্লির ভাড়া বাসা ছাড়তে বলেছিলেন সেখানকার মালিক।

গুড্ডু বলেন, দিল্লির ওই ভাড়া বাসা থেকে আমার স্ত্রীকে বের হয়ে যেতে বলায় তাকে আমি আমার মায়ের বাড়িতে নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম আজকে।

তবে গুড্ডুর মা কোনোভাবেই এই যুগলকে জায়গা দিতে রাজি না হওয়ায় পুলিশ দিল্লির ওই বাসার মালিককে অনুরোধ জানিয়েছেন, আপাততভাবে তাদের যেন সেখানে থাকতে দেওয়া হয়।

আমারসংবাদ/এআই