শিরোনাম

আপনি নারী না পুরুষ, প্রশ্ন পুলিশের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক   |  ০৮:০০, অক্টোবর ১৩, ২০১৯

শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের করতে গিয়ে থানায় হেনস্তার শিকার হয়েছেন এক ভারতের এক রূপান্তরিত নারী। তাঁর দাবি, শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের জন্য লিঙ্গ পরিবর্তনের সার্টিফিকেটও জমা দিতে হয় ওই রূপান্তরিতকে। বাধ্য হয়ে থানা থেকে বেরিয়ে যান তিনি। খবর সংবাদ প্রতিদিনের

সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিজ্ঞতার কথা জানান রূপান্তরিত। এরপরই দায়ের হয় অভিযোগ। এই ঘটনায় অভিযুক্ত এক রেলপুলিশকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ওই রূপান্তরিত নভি মুম্বই থেকে গোরেগাঁও যাচ্ছিলেন। অভিযোগ, ট্রেন দাদর স্টেশনে পৌঁছলে এক রেলপুলিশ তাঁর শ্লীলতাহানি করে। ওই রূপান্তরিতকে ভিড়ে ঠাসা ট্রেনে জড়িয়ে ধরার চেষ্টা করে। শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে অশ্লীলভাবে স্পর্শ করে বলেও অভিযোগ। সঙ্গে সঙ্গে ট্রেনের ভিতর চিৎকার করতে শুরু করেন ওই রূপান্তরিত। এরপরই থানায় অভিযোগ জানাতে যান তিনি।

নভি পুলিশের বিরুদ্ধে কর্তব্য পালনে গাফিলতির অভিযোগ করেছেন। তার দাবি- তাঁর লিঙ্গ আদতে কী, তা প্রমাণে চাপ দেয় পুলিশ। এক মহিলা পুলিশ কনস্টেবল রীতিমতো তাঁর পোশাক খুলে পরীক্ষানিরীক্ষাও করে দেখে।

নভি স্পষ্টই জানান, তাঁর শরীরে কোনও চোটাঘাত নেই যে পরীক্ষা করে প্রমাণ মিলবে। শ্লীলতাহানির অভিযোগের প্রমাণ দেওয়া সম্ভব নয় বলায় পুলিশ অভিযোগ নিতে গড়িমসি করে বলেও দাবি নভির।

পুলিশের সঙ্গে বাদানুবাদে প্রায় ঘণ্টাদুয়েক কেটে যায়। তারই মাঝে সার্টিফিকেট দেখিয়ে নিজের লিঙ্গ প্রমাণ করেন তিনি।

থানায় অভিযোগ জানাতে গিয়ে যে ভয়ংকর অভিজ্ঞতার সাক্ষী হয়েছেন তা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান। ওই ঘটনায় সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। এরপরই নড়েচড়ে বসেন পুলিশ আধিকারিকরা। অবশেষে ট্রেনে শ্লীলতাহানির ঘটনায় অভিযোগ জমা নেয় পুলিশ।

এই ঘটনায় দেবেন্দ্র ভাট নামে এক রেলপুলিশকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধৃতের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে।

আরআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত