শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে বললেন ড. কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদক   |  ০৩:১২, অক্টোবর ১৩, ২০১৯

আবরার হত্যার প্রতিবাদ জানাতে রোববার (১৩ অক্টোবর) জাতীয় প্রেসক্লাবে ঐক্যফ্রন্টের আয়োজনে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিকালে সমাবেশ শেষে প্রেসক্লাব থেকে আবরার স্মরণে এক শোক র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি কদম ফোয়ারার সামনে পৌঁছালে পুলিশী বাধার মুখে পড়ে। এ অবস্থায় স্লোগান ও বক্তব্যে মুখরিত ছিল রাজপথ।

স্লোগানে বলা হয়েছে, ‘বাধা দিয়ে আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না, আমার ভাইয়ের রক্ত বৃথা যেতে পারে না, আবরারের রক্ত বৃথা যেতে পারে না’।

ফ্রন্টের অন্যতম নেতা জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব পুলিশ বাধা দেয়ায় ২২ অক্টোবর প্রতিবাদ সমাবেশের ঘোষণা দেন। এছাড়া ১৮ অক্টোবর রয়েছে নাগরিক শোকসভা।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘সময় থাকতে মাথা ঠাণ্ডা করে পদত্যাগ করুন। আপনারা যেগুলো করছেন, এসব করে বার বার পার পাওয়া যাবে না।’

‘গত ২৯ ও ৩০ ডিসেম্বর কি কোনো নির্বাচন হয়েছিল? আপনি যে ৩০ তারিখে বললেন, আমাকে তৃতীয়বার নির্বাচিত করার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। কে আপনার ধন্যবাদ গ্রহণ করবে? আমি সাক্ষ্য দেবো, তৃতীয়বার আপনাকে কেউ নির্বাচিত করেনি। আপনি নাটক করেছেন, আপনিতো নাট্যকার কোনো নেত্রী না। আপনি নিজের মিথ্যার শিকার হয়েছেন। এতে ভয়াবহ পরিণতি হয়।’

কুষ্টিয়ায় আবরারের বাড়িতে যাওয়ার পথে বিএনপি নেতাদের বাধা দেয়ার প্রসঙ্গে ড. কামাল বলেন, ‘যারা এই বাধা দিচ্ছে, সবাই তাদের তালিকা করে রাখেন। এসব সাংবিধানিক অধিকারে বাধা দানকারীদের কড়া শাস্তি হবে।’

শোক র‌্যালিতে গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন, জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, জেএসডির প্রেসিডিয়াম সদস্য তানিয়া রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরাম নেতা অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, অধ্যাপক আবু সাঈদ, ঐক্যফ্রন্টের দপ্তর প্রধান জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু, ডা. জাফর উল্লাহ চৌধুরী, বিকল্পধারা বাংলাদেশ চেয়ারম্যান ড. নূরুল আমিন বেপারী, বিএনপির শ্যামা ওবায়েদ, কাজী বাসার প্রমুখ অংশ নেন। সভায় নেতাকর্মীরা জাতীয় পতাকা, কালো পতাকা ও নেতাকর্মীরা বুকে কালো ব্যাজ ধারণ করে আবরারের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

এসএ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত