শিরোনাম

কালীগঞ্জে এসিল্যান্ডের অপসারণ দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল

সামসুল হক জুয়েল, কালীগঞ্জ (গাজীপুর)  |  ১৮:৩৪, জুন ১২, ২০১৯

কালিগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে যানজট নিরসনে দায়িত্বপ্রাপ্ত লাইনম্যানকে ভ্রাম্যমাণ আদালত ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়ায় পরিবহন শ্রমিকরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে এসিল্যান্ডের অপসারণের দাবিতে আজ সকাল থেকে সকল প্রকার যানবাহন বন্ধ রেখে পরিবহন ধর্মঘট পালন করছে পরিবহন মালিক সমিতি ও পরিবহন শ্রমিকরা।

সকালে পরিবহন মালিক সমিতি ও পরিবহন শ্রমিকরা কালীগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে একত্রিত হয়ে কালীগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার(ভূমি) মোহাম্মদ জুবের আলমের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে উপজেলা পরিষদ চত্বরে গিয়ে মিছিলটি শেষ করেন। পরে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দসহ পরিবহন মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. শিবলী সাদিকের নিকট ঘটনাটি অবহিত করেন।

পরিবহন শ্রমিকরা জানায়, কালীগঞ্জ পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ড মুনশুরপুর গ্রামের মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে মো. জামির হোসেন দীর্ঘদিন যাবৎ বাসস্ট্যান্ডে লাইনম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছে। বাসস্ট্যান্ডে যানজট নিরসনে সে কাজ করে থাকে।

গতকাল দুপুরে কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)'র কার্যালয়ের লোক মারফত ওই লাইনম্যান জামির হোসেনকে অফিসে নিয়ে যায়। পরে তাকে বাসস্ট্যান্ডে পরিবহন থেকে চাঁদা তোলার অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এসিল্যান্ড জামিরকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করে গাজীপুর আদালতে পাঠিয়ে দেন।

এ ঘটনা জানার পর পরিবহন মালিক সমিতি ও পরিবহন শ্রমিকরা অসন্তোষ হয়। তারা বিক্ষুদ্ধ হয়ে বুধবার সকাল থেকে সকল প্রকার যানবাহন বন্ধ রেখে প্রতিবাদ করতে থাকেন। পরে এসিল্যান্ডের অপসারণের দাবিতে পরিবহন শ্রমিকরা বিক্ষোভ মিছিল বের করে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. শিবলী সাদিক বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। যেহেতু ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই লাইনম্যানকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে। এখন তো এ বিষয়ে কিছু করা যাবে না। পরবর্তীতে এ বিষয়গুলো আমি দেখবো।

তখন স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দদের তিনি বলেন, আপনারা পরিবহন শ্রমিকদের বুঝিয়ে বলুন, তারা যেন পরিবহন ধর্মঘট তুলে নেয়। কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যেন তারা না ঘটায়। পরবর্তীতে এমন কোনো ঘটনা ঘটবে না বলে তিনি সবায়কে আশ্বস্ত করেন।

পরে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মো. মাইনুল ইসলাম, পৌর যুবলীগের নির্বাহী সদস্য হাজী আজাদ ফয়সাল আহমেদ সাজ্জাদ, যুবলীগ নেতা মো. জহিরুল হক, মো. রাসেদ, মো. নুর ইসলাম ও কালীগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আলী আল রাফু অমিত উপস্থিত পরিবহন মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ ও পরিবহন শ্রমিকদের বুঝিয়ে পরিবহন ধর্মঘট তুলে নিতে অনুরোধ করেন।

স্থানীয় দলীয় নেতৃবৃন্দরা পরিবহন শ্রমিকদের নানা সমস্যায় পাশে থাকার আশ্বাস করলে পরিবহন শ্রমিকরা পরিবহন ধর্মঘট তুলে নিয়ে যানবাহন চলাচল শুরু করেন। প্রায় ৭ ঘন্টা কালীগঞ্জ-ঘোড়াশাল রাস্তাসহ বিভিন্ন রাস্তায় যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। এতে সাধারণ যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

এ সংক্রান্ত বিষয়ে কালীগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ জুবের আলমের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, কালীগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে পরিবহন থেকে চাঁদাবাজির অপরাধে জামির হোসেন নামে এক চাঁদাবাজকে মঙ্গলবার বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালত ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ


সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত